লোকসভা ভোটের সময় থেকেই ইভিএমের বদলে ব্যালটের দাবি তুলেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার রাজ্যের পরিচালনায় পরবর্তী পুরভোটেই ব্যালট ফেরাতে চাইলেন তিনি। মঙ্গলবার এক দলীয় বৈঠকে তিনি বলেন, ‘‘নির্বাচন কমিশনকে ( রাজ্য) বলব, রাজ্যের হাতে স্থানীয় প্রশাসনের যে ভোট রয়েছে, তা ব্যালটে হোক।’’ এদিনও লোকসভার ভোটের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন করে তিনি বলেন, ‘‘ওটা চিটিংবাজির ভোট হয়েছে।’’ রাজ্যের সব পুরসভার ভোট একই সঙ্গে করার কথা জানিয়ে দিয়েছেন মমতা।

ইভিএম নিয়ে তৃণমূলের আপত্তি ছিলই। লোকসভা ভোটের পরে ইভিএমে কারচুপি করা হয়েছে বলে অভিযোগ করে দেশব্যাপী আন্দোলনের কথাও বলেছিলেন দলনেত্রী। তা আরও জোরদার করতে রাজ্যের পুরভোটে ব্যালট ফেরানোর দাবি তুললেন তৃণমূলনেত্রী। এদিন নজরুল মঞ্চে রাজ্যের দলীয় কাউন্সিলরদের বৈঠকে মমতা বলেন, ‘‘ইভিএম নয়, ব্যালট ফেরাও। এবার ২১ জুলাইয়ের সমাবেশ থেকে এই স্লোগানই তুলব আমরা। এটাই আমাদের লক্ষ্য।’’ এই প্রসঙ্গেই রাজ্যের হাতে থাকা স্থানীয় প্রশাসনের নির্বাচনে ব্যালট ফেরানোর কথা উল্লেখ করেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর কথায়, ‘‘আমাদের রাজ্য থেকেই তা শুরু হোক।’’ রাজ্যের বেশ কিছু পুরসভার ভোট বকেয়া আছে। মেয়াদ ফুরিয়ে যাওয়া পুরসভাগুলিতে প্রশাসকও বসানো হয়েছে। সে সম্পর্কে মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, ‘‘সব পুরসভার নির্বাচন একসঙ্গেই হবে। আলাদা করে নির্বাচন করে লাভ নেই।  মানুষকে এই কষ্ট দেব না।’’ প্রসঙ্গত, এদিনই দার্জিলিং পুরবোর্ড ভেঙে প্রশাসক নিয়োগ করেছে রাজ্য সরকার।

সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে পুরসভা এলাকায় তৃণমূলের ফল খারাপ হয়েছে। দলের হাতে থাকা বহু পুরসভায় তৃণমূল হেরেছে। সেই ফল মাথায় রেখেই মমতা এদিন বলেন, ‘‘এলাকায় ভাল কাজ না হলে দোষটা দলের উপর এসে পড়ে। ভাল কাজ হলে দলের সুনাম হয়। অনেক পুরসভা এলাকা সুন্দর সাজিয়ে রাখে। অনেকে সে সব পাত্তাই দেয় না। জল, জঞ্জাল জমে থাকে।’’

আরও পডু়ন: তোলাবাজির টাকা ফেরত দিতে দলের নেতা-কর্মীদের নির্দেশ দিলেন তৃণমূল নেত্রী

শুধুমাত্র কাউন্সিলরদের জন্যই ডাকা এদিন দলনেত্রীর ডাকা এই বৈঠকে অনুপস্থিতি ছিল চোখ পড়ার মতো। কলকাতা পুরসভার ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ এদিনের বৈঠকে যাননি। তিনি জানিয়েছেন, সোমবার রাত থেকে অসুস্থ। তাই থাকতে পারেননি। আরও এক মেয়র পারিষদ অনুপস্থিত ছিলেন। পুরুলিয়া ও বীরভূমের পাঁচ কাউন্সিলর ছিলেন না। উত্তরবঙ্গের কয়েকটি পুরসভার কিছু কাউন্সিলর অনুপস্থিত ছিলেন। দলীয় সূত্রে বলা হয়েছে, দেরিতে জানানোয় টিকিট পেতে সমস্যা হয়েছে।