এনসিআরবি বা ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস বুরোর সদ্য প্রকাশিত সাম্প্রতিক রিপোর্ট অনুযায়ী হিংসাত্মক অপরাধের দিক থেকে গোটা দেশের মধ্যে শীর্ষে উত্তরপ্রদেশ। পশ্চিমবঙ্গ তৃতীয়। ২০১৭ সালে বাংলায় ৪৮,৬০৯টি হিংসাত্মক অপরাধের ঘটনা নথিভুক্ত হয়েছে। বঙ্গে ২০১৫ সালে (৪৬,১১৬টি) এবং ২০১৬ সালে (৪৬,৭২৩টি) এর থেকে কম অপরাধের ঘটনা নথিবদ্ধ হয়েছিল।

২০১৭-য় উত্তরপ্রদেশে ৬৪,৪৫০টি হিংসাত্মক অপরাধের ঘটনা নথিভুক্ত হয়েছে। ৫০,৭০০টি হিংসাত্মক ঘটনা নিয়ে বিহার রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। সারা দেশে অপরাধ নথিভুক্তির মাত্রা ২০১৬-র তুলনায় ২০১৭ সালে ৩.৬% বেড়েছে। অপহরণের মাত্রা বেড়েছে ৯%। শিশু ও মহিলাদের উপরে নির্যাতন, তফসিলি জাতি, জনজাতির উপরে অপরাধের তথ্যও নথিবদ্ধ হয়েছে ওই রিপোর্টে। মহিলাদের উপরে অপরাধেও পশ্চিমবঙ্গ তৃতীয়। ২০১৭ সালে রাজ্যে ৩০,৯৯২টি এই ধরনের অপরাধ নথিভুক্ত হয়েছিল। শীর্ষে উত্তরপ্রদেশ (৫৬,০১১টিঃ এবং দ্বিতীয় মহারাষ্ট্র (৩১,৯৭৯টি) ধর্ষণের চেষ্টার ক্ষেত্রে পশ্চিমবঙ্গ প্রথম। চেষ্টা করেও এই বিষয়ে রাজ্যের নারী, শিশু ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী শশী পাঁজার বক্তব্য জানা যায়নি। বড় শহরে হিংসাত্মক ঘটনা নথিভুক্তির নিরিখে শীর্ষে দিল্লি (১১,৬৮৪টি)। তার পরে মুম্বই, পটনা, বেঙ্গালুরু, পুণে। কলকাতায় ওই সময়ে ১২৩১টি হিংসাত্মক অপরাধ নথিভুক্ত হয়েছে। শিশুদের উপরে অপরাধে এগিয়ে উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র। তাদের সঙ্গে অপরাধের হারের দিক থেকে পশ্চিমবঙ্গের ফারাক অনেকটা। ওই সময়ে এ রাজ্যে এমন অপরাধ নথিভুক্ত হয়েছে ৬৫৫১টি। রিপোর্টে ইঙ্গিত, সব রাজ্যেই সাইবার অপরাধ বেড়েছে। শীর্ষে অসম।