দুই-তৃতীয়াংশ আসন জিতে তাঁরা এ রাজ্যে ক্ষমতায় আসবেন বলে দাবি করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। তবে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে কাউকে সামনে রেখে তাঁরা বিধানসভা নির্বাচনে যাবেন কি না, তা এখনও নিশ্চিত নয় বলে জানিয়েছেন তিনি।

ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট মনোনীত হওয়ার সময় থেকেই সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে বিজেপির সম্পর্ক নিয়ে গুঞ্জন চলছে। এমন জল্পনাও হচ্ছে, এ রাজ্যে তাঁকেই মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী করে নির্বাচনে নামতে পারে বিজেপি। সৌরভ নিজে অবশ্য এখনই এই রকম রাজনৈতিক সম্ভাবনার কথা নাকচ করেছেন। একটি টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে একই কথা বলেছেন শাহও। তাঁর দাবি, সৌরভের সঙ্গে রাজনীতি নিয়ে তাঁর কোনও কথা হয়নি। তবে রাজ্যে ক্ষমতায় আসা নিয়ে বিজেপি সভাপতির দাবিকে ‘দিবাস্বপ্ন’ বলে কটাক্ষ করেছেন রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘‘দিবাস্বপ্ন দেখা বন্ধ করুন! এ সব লম্বাচওড়া কথা না বলে কেন্দ্রের শাসক হিসেবে ওঁদের সুশাসনে মন দেওয়া উচিত। মোদীর নীতির কারণে দেশের আর্থিক অবস্থা তলানিতে ঠেকেছে।’’

ওই সাক্ষাৎকারে শাহ ফের বলেছেন সারা দেশে এনআরসি করার কথা। জবাবে তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘বিজেপি আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি করতে চাইছে। এই আতঙ্কে ইতিমধ্যেই ১১ জন মারা গিয়েছেন। বাংলার মানুষ বিজেপিকে উপযুক্ত জবাব দেবে।’’