সঙ্কট যেন কাটছেই না বিএসএনএল-এর। করুণ দশা ঠিকা শ্রমিকদেরও। কোথাও কোথাও ৯ মাস ধরে তাঁরা বেতন তো পাচ্ছেনই না, এ বার মাসে  কাজের দিনও কমছে। ঠিকা শ্রমিকদের অভিযোগ, বিএসএনএল-এর কর্পোরেট অফিস থেকে নোটিস জারি করে বলা হয়েছে, ২৬ দিনের বদলেমাসে ২০ দিন কাজ করতে হবে।

শুক্রবার ঠিকা শ্রমিকেরা রাজভবনে গিয়ে ডেপুটেশন জমা দেন। এর পাশাপাশি এ দিন তাঁরা কলকাতার চিফ জেনারেল ম্যানেজারকে ঘেরাও করেন। ‘ক্যালকাটা টেলিফোন ঠিকা শ্রমিক সংগঠন’-এর সাধারণ সম্পাদক অরূপ সরকার বলেন, “বেতন না পেয়ে ৫ জন ঠিকা শ্রমিক আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন। না খেয়ে দিন কাটছে আমাদের। এ বার নোটিস জারি হয়েছে, মাসে ২০ দিন কাজ হবে। একে বেতন নেই, তার উপর কাজের দিনও কমছে। এরই প্রতিবাদে আমরা সিজিএম-কেঘেরাও করছি। রাজভবনে গিয়েও আমাদের ডেপুটেশন দিয়েছি।”

আরও পড়ুন: ‘তথ্য বিকৃতি’র অভিযোগ এনে তিনটি বাংলা দৈনিকের বিরুদ্ধে শাসক দলের নোটিস

 

শুক্রবার ঠিকা শ্রমিকেরা রাজভবনে গিয়ে ডেপুটেশন জমা দেন।

আরও পড়ুন: ভাটপাড়ায় তৃণমূলের প্রতিনিধি দল, বাড়ি বাড়ি ঘুরে কথা বাসিন্দাদের সঙ্গে

‘বিএসএনএল ক্যালকাটা টেলিফোন কনট্রাকচুয়াল লেবার ফোরাম’-এর তরফেশেখ সাহাবুদ্দিন বলেন, “আমরা প্রতিদিনের ভিত্তিতে মজুরি পেয়ে থাকি। কাজের দিন কমে গেলে আমাদের মাসিক আয়ও কমে যাবে। এমনিতেই গত কয়েকদিন ধরে মাইনে না পাওয়ায় সন্তানদের নিয়ে পথে বসার অবস্থা হয়েছে।”