নারদ স্টিং অপারেশন কাণ্ডে রাজ্যের পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্র, পুলিশকর্তা এসএমএস মির্জা, সাংসদ সৌগত রায়ের ‘ভয়েস ম্যাচিং’ বা স্বর-সাযুজ্যের পরীক্ষা হয়েছে আগেই। এ বার পালা নারদ-কাণ্ডে টাকা নেওয়ার মামলায় অন্যতম দুই অভিযুক্ত, কলকাতা পুরসভার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু চট্টোপাধ্যায়ের। স্বর পরীক্ষার জন্য কাল, বুধবার ওই দুই নেতাকে তলব করা হয়েছে বলে সিবিআই সূত্রের খবর।

শোভন ও শুভেন্দুর সঙ্গে কাল, ম্যাথুকেও ডাকা হতে পারে বলে তদন্তকারী অফিসারেরা জানান। তবে ম্যাথু সোমবার বলেন, ‘‘আমার কাছে এই বিষয়ে সিবিআইয়ের কোনও নোটিস এখনও পর্যন্ত আসেনি।’’

সাংবাদিক ম্যাথু স্যামুয়েল ব্যবসায়ীর ছদ্মবেশ ধরে এই রাজ্যের যে-সব নেতা-মন্ত্রীকে ঘুষ দিয়ে তার ভিডিয়ো করেছিলেন, শোভন ও শুভেন্দু সেই তালিকায় রয়েছেন। লেনদেনের সময় শাসক দলের বিভিন্ন নেতানেত্রীর সঙ্গে কথোপকথন হয়েছিল তাঁর। সেই সব কথাবার্তা তিনি ভিডিয়োয় তুলে রেখেছেন বলে ম্যাথুর দাবি। তাঁর সেই ভিডিয়ো রেকর্ডিংয়ে বন্দি বিভিন্ন স্বরের সঙ্গে অভিযুক্তদের গলার স্বর মিলছে কি না, তা বৈজ্ঞানিক ভাবে পরীক্ষা করে নিতে চায় সিবিআই। সেই পরীক্ষা যদি সফল হয়, তা হলে তথ্যপ্রমাণ হিসেবে সেটা আদালতে পেশ করা হবে। সিবিআইয়ের তদন্তকারীরা অনেক আগেই অভিযুক্তদের স্বর পরীক্ষা করাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু প্রায় সকলেই তা করতে অস্বীকার করেন। 

অভিযুক্তেরা ওই পরীক্ষার ব্যাপারে বেঁকে বসায় ভয়েস ম্যাচিং পরীক্ষার অনুমতি চেয়ে শেষ পর্যন্ত আদালতে যায় সিবিআই। সম্প্রতি সেই অনুমতি মিলেছে। তাই এখন বাধ্য হয়েই স্বর পরীক্ষায় রাজি হতে হচ্ছে অভিযুক্তদের। সুব্রত, মদন, মির্জা, সৌগতের পরে আরও অনেক অভিযুক্তের ভয়েস ম্যাচিং পরীক্ষা বাকি রয়েছে। অন্যতম অভিযুক্ত, কলকাতার পুর কাউন্সিলর ইকবাল আহমেদ বিষয়টি নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন।

নারদ-কাণ্ডে তিনি রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা, মন্ত্রী ও সাংসদ মিলিয়ে বেশ কয়েক জনকে প্রায় এক কোটি টাকা দিয়েছিলেন বলে ম্যাথুর দাবি। তিনি জানান, ওই টাকা তাঁকে দিয়েছিলেন তৃণমূলেরই সাংসদ কেডি সিংহ। ম্যাথু তখন ছিলেন কেডি-র মালিকানাধীন তহেলকা সংবাদ সংস্থার ‘এডিটর’। তহেলকার জন্যই কেডি-র নির্দেশে তিনি স্টিং অপারেশন করেছিলেন বলে সিবিআই-কে জানান ম্যাথু। তাঁর দাবি, কেডি-র অর্থ লগ্নি সংস্থা, অ্যালকেমিস্টের সল্টলেক শাখা থেকে তাঁকে নারদ স্টিং অপারেশনের টাকা দেওয়া হয়েছিল। সম্প্রতি দিল্লিতে ম্যাথু এবং কেডি-কে মুখোমুখি বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদও করেছে সিবিআই।