বিমানে ব্যাঙ্কক থেকে কলকাতায় বিধিবহির্ভূত ভাবে সোনা আনার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরা নারুলার বিরুদ্ধে। সেই মামলায় ৩১ জুলাই পর্যন্ত রুজিরাকে শুল্ক দফতরে ডেকে পাঠানো যাবে না বলে নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। বুধবার শুল্ক দফতর হাইকোর্টে জানাল, তারা ডিভিশন বেঞ্চের নির্দেশের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আপিল মামলা করেছে।

শুল্ক দফতরের স্ট্র্যান্ড রোডের কার্যালয়ে তলব করে রুজিরাকে সমন পাঠানো হয়েছিল। সেই সমনের উপরে অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ চেয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের আদালতে মামলা করেন রুজিরা। বিচারপতি ৫ এপ্রিল শুল্ক দফতরে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন রুজিরাকে। সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বিচারপতি ইন্দ্রপ্রসন্ন মুখোপাধ্যায় ও বিচারপতি মহম্মদ নিজামুদ্দিনের ডিভিশন বেঞ্চে আপিল করেন রুজিরা। ডিভিশন বেঞ্চ ৮ এপ্রিল শুল্ক দফতরকে নির্দেশ দেয়, ৩১ জুলাই পর্যন্ত রুজিরাকে তলব করা যাবে না। মূল মামলাটি ফের বিচারপতি ভরদ্বাজের আদালতে পাঠিয়ে দিয়ে ডিভিশন বেঞ্চ জানায়, ওই অভিযোগের তদন্ত করার বৈধতা শুল্ক দফতরের আছে কি না, সিঙ্গল বেঞ্চই তা বিচার করবে।

বিচারপতি ভরদ্বাজের আদালতে পৃথক একটি মামলা করেছেন রুজিরার আত্মীয় মেনকা গম্ভীর। এ দিন তার শুনানিতে তাঁর আইনজীবী অরিজিৎ চক্রবর্তী জানান, তাঁর মক্কেলের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ এনেছে শুল্ক দফতর। রুজিরার ক্ষেত্রে ডিভিশন বেঞ্চ যে-নির্দেশ দিয়েছে, সেই নির্দেশই বলবৎ রাখার আবেদন জানান ওই আইনজীবী।

বিচারপতি ভরদ্বাজ আবেদন মঞ্জুর করে জানান, ২২ জুলাই তিনি দু’টি মামলাই একসঙ্গে শুনবেন। মেনকা ও শুল্ক দফতরকে এর মধ্যে হলফনামা দিয়ে বক্তব্য পেশ করতে হবে। সুপ্রিম কোর্ট আপিল মামলায় যদি কোনও নির্দেশ দেয়, শুল্ক দফতরকে তা ২২ জুলাই জানাতে হবে।