• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দিল্লি থেকে নিখোঁজ বাগদার চিকিৎসক

Family
চিকিৎসকের স্ত্রী। ছবি: নির্মাল্য প্রামাণিক

খোঁজ মিলছে না বাগদার এক চিকিৎসকের। পরিবারের দাবি, হরিয়ানা থেকে বাগদার বাড়িতে ফেরার পথে দিল্লি থেকে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছেন তিনি।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বাগদার পুরাতন হেলেঞ্চা এলাকার বাসিন্দা বছর ছাপ্পান্নোর অসীম সরকার গত আট বছর ধরে হরিয়ানার মেয়ট জেলায় হাতুড়ে চিকিৎসক হিসেবে কাজ করছেন। বছরে একবার করে মাসখানেকের জন্য বাগদার বাড়িতে আসতেন তিনি। সেখানে তাঁর স্ত্রী ও দুই ছেলেমেয়ে থাকেন। পরিবারের সদস্যরা জানান, গত ৩০ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় দিল্লি থেকে দুরন্ত এক্সপ্রেস ধরার কথা ছিল তাঁর। ট্রেনে ওঠার আগে বিকেল পাঁচটা নাগাদ বাড়িতে ফোন করে স্ত্রীকে জানিয়েছিলেন ট্রেন ঘণ্টা খানেক দেরিতে চলছে। ফলে তাঁর ট্রেনে উঠতে কিছুটা দেরি হবে। পরিবারের দাবি, সেটাই ছিল তাঁর শেষ ফোন। তারপর থেকে তাঁর কোনও সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না। ফোনও বন্ধ।তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করতে না পেরে ছেলে অভিষেক সরকার দিল্লিতে যান। সেখানেও বাবার কোনও খোঁজ পাননি তিনি। ৬ জানুয়ারি নিউ দিল্লিতে রেল পুলিশের কাছে নিখোঁজ ডায়েরিও করেন। অভিষেক বলেন, ‘‘ট্রেনে ওঠার আগে বাবা ফোন করে জানিয়েছিলেন, ট্রেন লেট আছে, ফলে ফিরতে দেরি হবে। তারপর থেকে তাঁর কোনও সন্ধান নেই। তিনি কোন স্টেশন থেকে ফোন করেছিলেন সেটা বুঝতে পারি নি।’’ অসীমের স্ত্রী মায়া সরকার বলেন, ‘‘কী যে হল বুঝতে পারছি না। মানুষটা কবে ফিরবে সেই অপেক্ষায় বসে আছি।’’

শনিবার বাগদা থানায় গিয়ে সব ঘটনা জানায় সরকার পরিবার। পুলিশ জানিয়েছে, তাঁকে খুঁজে বার করার সমস্ত রকম চেষ্টা চালানো হচ্ছে। পরিবারের সদস্যরা চান, বিষয়টি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হতে। মায়া বলেন, ‘‘মুখ্যমন্ত্রী আমার স্বামীকে খুঁজে দেবেন সেই আশা নিয়ে তাঁর কাছে আবেদন করতে চাই।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন