• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ভাটপাড়ায় আইনশৃঙ্খলার ‘অবনতি’ নিয়ে জানতে ডিজি-কে ডেকে কথা রাজ্যপালের

DG with Jagdeep Dhankhar
ভাটপাড়ায় ভোটের সময় যে-অশান্তি শুরু হয়েছিল, এখনও সেটা থামছে না কেন, ডিজি-র কাছে তা জানতে চান রাজ্যপাল। 

ভাটপাড়ার গোলমালে আহত সাংসদ অর্জুন সিংহকে দেখতে সোমবার হাসপাতালে গিয়েছিলেন তিনি। আইনশৃঙ্খলার ‘অবনতি’ নিয়ে জানতে মঙ্গলবার রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্রকে রাজভবনে তলব করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। বেলা ১১টা থেকে প্রায় এক ঘণ্টা রাজ্যপালের সঙ্গে আলোচনা করেন ডিজি। রাজভবনের এক প্রেস বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, উত্তর ২৪ পরগনার ভাটপাড়া-সহ রাজ্যের সামগ্রিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে দু’জনের মধ্যে আলোচনা হয়েছে। 

রাজভবন সূত্রের খবর, প্রায় রোজই যে-ভাবে বিভিন্ন জেলায় রাজনৈতিক সংঘর্ষ হচ্ছে, রাজ্যপাল তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। প্রতিটি রাজনৈতিক দল তাদের বিভিন্ন কর্মসূচি যাতে শান্তিতে করতে পারে, সেই জন্য পুলিশকে ব্যবস্থা নিতে বলেছেন তিনি। ভাটপাড়ায় ভোটের সময় যে-অশান্তি শুরু হয়েছিল, এখনও সেটা থামছে না কেন, ডিজি-র কাছে তা জানতে চান রাজ্যপাল। 

রাজভবন সূত্রে জানা গিয়েছে, বীরেন্দ্র এ দিন রাজ্যপালকে জানান, সাম্প্রতিক ঘটনায় পুলিশ সংযম দেখিয়েছিল বলেই বড় কিছু ঘটেনি। পুলিশ কমিশনারের উপরে প্রাণঘাতী হামলা হয়েছিল বলেও রাজ্যপালকে জানান ডিজি। তাঁর বক্তব্য, ভোটের পরে রাজ্যে যে-ভাবে রাজনৈতিক অশান্তি ছড়িয়েছিল, তা এখন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। কোথাও দু’-একটা ঘটনা ঘটলে পুলিশ দ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছে বলেও রাজ্যপালকে জানিয়েছেন পুলিশ-প্রধান। লোকসভা ভোটের পর থেকে কতগুলি ঘটনা ঘটেছে, কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে— সবই রাজ্যপালকে জানান বীরেন্দ্র। 

রাজ্যপাল সব শুনে ডিজি-কে জানান, পুলিশের বিরুদ্ধে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল যে-অভিযোগ করছে, তা না-উঠলেই ভাল। রাজ্যে শান্তি বজায় থাকার জন্য যা করা উচিত, পুলিশকে সে-দিকে নজর দিতে বলেন রাজ্যপাল। বিশেষত জনপ্রতিনিধিদের নিরাপত্তা, রাজনৈতিক খুন কী ভাবে ঠেকানো যায়, তা নিয়ে রাজ্য পুলিশের প্রধানকে সক্রিয় হতে বলেন তিনি। 

এ রাজ্যে আসার পরে এই প্রথম প্রশাসনিক কর্তাদের ডেকে আইনশৃঙ্খলা নিয়ে রিপোর্ট নিলেন রাজ্যপাল। এর আগে হাসপাতালে অর্জুনকে দেখতে গিয়ে তিনি বলেছিলেন, ‘‘রাজ্যের সার্বিক পরিস্থিতি দেখে আমি ব্যথিত।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন