প্রচারে জোর দেওয়ার নির্দেশ মমতার
দলের বহু নেতা মঞ্চে থাকা সত্ত্বেও শুধু তাঁদের দু’জনের নাম করে দলনেত্রী জঙ্গিপুরে দলীয় প্রার্থীর প্রচার নিয়ে প্রশ্ন তোলায় মঞ্চে উপস্থিত নেতাদেরও অনেকেই কিছুটা হকচকিয়ে যান।
MAMATA BANERJEE

বুধবার জঙ্গিপুরের ভোটমাটিতে তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি: অর্কপ্রভ চট্টোপাধ্যায়

ওঁদের দু’জনের ‘মধুর’ সম্পর্কের কথা জানে তামাম জঙ্গিপুর। দু’জনকে নিয়ে জলঘোলাও বড় কম হয় না। বুধবার দলীয় প্রার্থী খলিলুর রহমানের প্রচারে জঙ্গিপুরে এসেছিলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দলীয় সূত্রে খবর, মঞ্চে দলের ওই দুই নেতা জাকির হোসেন ও ইমানি বিশ্বাসকে কার্যত ‘সতর্ক’ করেছেন মমতা। তিনি দু’জনকেই নির্দেশ দিয়েছেন, দলীয় প্রার্থীকে নিয়ে প্রচারে আরও বেশি ‘সক্রিয়’ হতে হবে।

মঞ্চে তখন বসেছিলেন জঙ্গিপুরের তৃণমূল প্রার্থী খলিলুর রহমান। তাঁকে দেখিয়ে জাকির অবশ্য দলনেত্রীকে বোঝাবার চেষ্টা করেন, ‘‘প্রচার চলছে জোরকদমে। তাতে বেশ  সাড়াও মিলছে।’’  

জঙ্গিপুরের বড়শিমুল মাঠে তৃণমূলের নির্বাচনী জনসভায় বুধবার জেলা সভাপতি সুব্রত সাহা  থেকে দলের সর্বস্তরের নেতারা হাজির ছিলেন। মঞ্চে অন্যদের সঙ্গে বসেছিলেন ইমানি ও জাকিরও। দলের এক নেতা বলছেন, ‘‘সেখানেই ইমানি ও জাকিরকে দেখে দলনেত্রী দু’জনের নাম করে বলেন, ‘জঙ্গিপুরে ঠিক মতো প্রচার হচ্ছে না। আমার কাছে খবর আছে। ভাল করে প্রচারে নামতে হবে দু’জনকেই।’ দু’জনেই অবশ্য বাধ্য ছাত্রের মতো ঘাড় নেড়েছেন।’’

দলের বহু নেতা মঞ্চে থাকা সত্ত্বেও শুধু তাঁদের দু’জনের নাম করে দলনেত্রী জঙ্গিপুরে দলীয় প্রার্থীর প্রচার নিয়ে প্রশ্ন তোলায় মঞ্চে উপস্থিত নেতাদেরও অনেকেই কিছুটা হকচকিয়ে যান। তবে ওই দু’জনকে ছাড়া এ দিন দলের আর কাউকে মমতা তেমন কিছু বলেননি বলেই দলীয় সূত্রে খবর।

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

জাকির ও ইমানি দু’জনেই মূলত বিড়ি ব্যবসায়ী । দু’জনেই সুতি বিধানসভা এলাকার দলীয় নেতা হলেও বর্তমানে জাকির জঙ্গিপুরের বিধায়ক এবং জঙ্গিপুর লোকসভা নির্বাচন কমিটির সভাপতি। ইমানি আবার সেই কমিটির আহ্বায়ক। বহুদিন থেকেই দুই নেতার ‘মধুর’ সম্পর্ক নিয়ে চর্চা রয়েছে দলের অন্দরে। ফলে দুই নেতাই জঙ্গিপুরের দলীয় প্রার্থীর হয়ে প্রচার করছেন আলাদা ভাবেই। 

জাকির বলছেন, ‘‘আমি দলনেত্রীকে জানিয়েছি, প্রার্থীর হয়ে প্রচার চলছে ভাল ভাবেই। তিনি প্রচারে আরও জোর দিতে বলেছেন। তবে, এটাকে সতর্ক করা বলে না।”

আর ইমানি বিশ্বাসের কথায়, “হ্যাঁ, মঞ্চে আমার সঙ্গে দলনেত্রীর কথা হয়েছে।  প্রচারে আরও জোর দিতে বলেছেন তিনি। দলের বহু নেতাই সেখানে ছিলেন। কোন নেতা কী বলেছেন তা জানি না। তবে সতর্ক করার ব্যাপারটা ঠিক নয়। সুতি থেকে এ বারে তৃণমূলকে যথেষ্ট লিড দিয়েই আমার কাজের সাফল্য প্রমাণ করব।”

এ দিন  সভা শেষ করে মঞ্চ থেকে নেমে উপস্থিত সমস্ত নেতাদের নিয়ে মিনিট দুয়েক কথা বলেন মমতা। সেখানেও দলনেত্রী বলেন, “জেলার তিনটি আসনেই জিততে হবে এ বারে। প্রচারে আরও জোর দিতে হবে। সকলকে একসঙ্গে মিলেমিশে কাজ করতে হবে।” 

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত