সংঘাত যতই থাকুক, যতই বাড়ুক তৃণমূল-বিজেপি রাজনৈতিক উত্তাপ— সৌজন্যের আমে এ বারেও ভরসা রাখছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বিভিন্ন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে পশ্চিমবঙ্গের বাছাই করা সেরা আম পাঠিয়ে এ বারও আম-দৌত্যে সক্রিয় হয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। দিল্লিবাসীকে বাংলার আমের রসাস্বাদনের সুযোগ করে দিতে ও আমের বিপণন বাড়াতে ছ’বছর রাজধানীতে আম উৎসব করে আসছে রাজ্য সরকার। আজ দিল্লির জনপথ রোডের হ্যান্ডলুম হাটে তার সূচনা হল।

রাজ্য প্রশাসন সূত্রে খবর, ফি বছরের মতো এ বারও প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি-সহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও শীর্ষস্থানীয় মন্ত্রীদের কাছে পৌঁছে যাবে বাংলার হিমসাগর, গোলাপখাস, ল্যাংড়া। যাবে সনিয়া ও রাহুল গাঁধীর কাছেও। জল্পনা শুরু হয়েছে, অমিত শাহকে নিয়ে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হয়ে তিন সপ্তাহের মধ্যে রাজ্য সরকারকে তিনটি কড়া অ্যাডভাইসরি পাঠানোকে ভাল ভাবে নেননি তৃণমূল নেতৃত্ব। তাঁর কাছে কি যাবে সৌজন্যের আম? রাজ্য সরকারের এক পদস্থ কর্তা বলেন, ‘‘এ বার কাদের দিতে হবে, সেই তালিকা এখনও আসেনি। তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাকিনে আম গিয়েছে অতীতে।’’