• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

স্বাস্থ্যবিধি মেনে মার্কশিট, ভর্তি শেষ অগস্টেই

Madhyamik
—ফাইল চিত্র

করোনার প্রাদুর্ভাব প্রশমনের কোনও লক্ষণই আপাতত দেখা যাচ্ছে না। স্কুল-কলেজ বন্ধ দীর্ঘদিন ধরে। তারই মধ্যে ১ অগস্ট একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাচ্ছে। মধ্যশিক্ষা পর্ষদ বুধবার মাধ্যমিকের ফল প্রকাশ করার পরেই এ কথা জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘ভর্তি-প্রক্রিয়া শেষ করে ফেলতে হবে ৩১ অগস্টের মধ্যে।’’

পুরো অগস্ট জুড়ে কোন কোন দিন ছাত্রছাত্রীরা নিজেদের স্কুলে এবং অন্য স্কুলে ভর্তি হতে পারবে, তারও সময় ভাগ করে দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি জানান, অগস্টের ১ থেকে ১০ তারিখ পর্যন্ত ছেলেমেয়েরা নিজেদের স্কুলে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হতে পারবে। যারা নিজেদের স্কুল ছেড়ে অন্য কোনও স্কুলে ভর্তি হতে চায়, তারা সেখানে ভর্তি হওয়ার জন্য সময় পাবে ১১ থেকে ৩১ অগস্ট পর্যন্ত। তবে ভর্তির সময় ছাত্রছাত্রীরা নয়, নথিপত্র জমা দেবেন অভিভাবকেরা।

একই সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী এ দিন জানিয়ে দেন, অতিমারির সংক্রমণ এড়াতে নির্দিষ্ট স্বাস্থ্যবিধি মেনেই অভিভাবকদের হাতে মার্কশিট তুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। ২২ এবং ২৩ জুলাই বিভিন্ন জেলার ক্যাম্প অফিসে মার্কশিট দেওয়া হবে স্কুলের প্রধান শিক্ষক-শিক্ষিকাদের। তাঁরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে মার্কশিট স্কুলে নিয়ে যাবেন এবং সেখান থেকে তা বিতরণ করবেন অভিভাবকদের মধ্যে। ক্যাম্প অফিসগুলিতে মার্কশিট পাঠানোর আগে করোনা-সতর্কতা হিসেবে সেই সব ভবনকে ‘স্যানিটাইজ়’ বা জীবাণুমুক্ত করতে হবে। শিক্ষক-শিক্ষিকারাও স্বাস্থ্যবিধি মেনেই স্কুলে পরীক্ষার্থীর অ্যাডমিট কার্ড এবং অন্যান্য প্রামাণ্য নথিপত্র দেখে অভিভাবকদের হাতে মার্কশিট তুলে দেবেন। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘‘করোনা আবহে স্কুলে স্কুলে যে-ভাবে অভিভাবকদের হাতে মিড-ডে মিলের চাল-আলু ইত্যাদি দেওয়া হয়, সেই ভাবেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাঁদের হাতে মার্কশিট দিতে হবে। মার্কশিট দেওয়ার সময় কোনও রকম ভিড় করা যাবে না। প্রয়োজনে কয়েক দফায় মার্কশিট দিতে হবে।’’ যথাযথ ভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মার্কশিট বিতরণ করা হচ্ছে কি না, সেই বিষয়ে জেলা প্রশাসনের কর্তাদেরও নজরদারি চালাতে হবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

শুধু শিক্ষামন্ত্রী পার্থবাবুই নন, এ দিন মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীদের পদে পদে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কথা মনে করিয়ে দেন পর্ষদের সভাপতি কল্যামণয় গঙ্গোপাধ্যায়ও। মাধ্যমিকের ফল ঘোষণার আগে কল্যাণময়বাবু বলেন, ‘‘পরীক্ষার ফল বেরোনোর পরে যারা ভাল ফল করেছে, অনেকে তাদের সংবর্ধনা দিতে আসবেন। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে এ বার আবেগ সংযত রেখে সব ধরনের সংবর্ধনা এড়িয়ে যাওয়াই ভাল।’’

করোনার জন্য দূরত্ব-বিধি বজায় রাখতে মাধ্যমিক পরীক্ষার ফল নিয়ে এ দিন ‘ভার্চুয়াল’ সাংবাদিক বৈঠক করা হয়। পর্ষদ-প্রধান কল্যাণময়বাবু ছিলেন একটি ঘরে। অন্য ঘরে থাকা সাংবাদিকেরা তাঁকে দেখতে পান পর্দায়। ছিল প্রশ্নোত্তর পর্বও।

উচ্চ মাধ্যমিকের ফল বেরোবে শুক্রবার বেলা সাড়ে ৩টেয়। জেলার ক্যাম্প অফিসে স্কুলের প্রধান শিক্ষক-শিক্ষিকা বা স্কুলের অন্য প্রতিনিধিরা ৩১ জুলাই থেকে বেলা ২টোর পরে মার্কশিট হাতে পাবেন। তার পরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে যত দ্রুত সম্ভব স্কুল থেকে মার্কশিট তুলে দিতে হবে পরীক্ষার্থী বা অভিভাবকদের হাতে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন