আপাতত বৃষ্টির হাতথেকে রেহাই নেই। গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ এবং বাংলাদেশ সংলগ্ন এলাকার উপর যে ঘূর্ণাবর্তটি অবস্থান করছে, তা নিম্নচাপে পরিণত হতে চলেছে। ফলে আগামী ২৪ ঘণ্টায় কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হবে বলে জানিয়েছে আলিলুর আবহাওয়া দফতর।

শুক্রবার গভীর রাত থেকে শনিবার দুপুর পর্যন্ত কলকাতায় ভারী বৃষ্টির কারণে ঘাটতি অনেকটাই কমেছে। কিন্তু, লাগাতার বৃষ্টির কারণে শহরের বহু এলাকা জলের তলায়। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে শনিবার সকাল সাড়ে ৮টা পর্যন্ত কলকাতায় বৃষ্টি হয়েছে প্রায় ১৩৭.৬ মিলিমিটার। এ দিন সকাল সাড়ে ৮টা থেকে সকাল সাড়ে ১১টা পর্যন্ত কলকাতায় (আলিপুর) বৃষ্টি হয়েছে ৪৮.৫ মিলিমিটার।

কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরের পূর্বাঞ্চলীয় অধিকর্তা সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে। এই ঘূর্ণাবর্তের প্রভাবে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দক্ষিণবঙ্গের উপরে নিম্নচাপ তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ রাজ্যের উপরে মৌসুমী অক্ষরেখা সক্রিয় রয়েছে। ১৭, ১৮ তারিখ দক্ষিণবঙ্গের সব জেলাতে ভালই বৃষ্টি হবে।”

 

আরও পডু়ন: লাইভ: বৃষ্টি থামায় মহানগরে কিছুটা স্বস্তি, তবে বর্ষণ চলবে, পূর্বাভাস আলিপুরের

এ দিন ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি হবে কলকাতা, দুই মেদিনীপুর, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, ঝাড়গ্রামে। রবিবার বীরভূম, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া অর্থাৎ পশ্চিমের জেলাগুলিতে ভারী বৃষ্টি হবে। দক্ষিণবঙ্গের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতেও বৃষ্টি হবে মৌসুমী অক্ষরেখার কারণে। উত্তরবঙ্গে বৃষ্টির ঘাটতে প্রায় নেই বললেই চলে। দক্ষিণবঙ্গে ধীরে ধীরে ঘাটতি কমে আসছে।

আরও পডু়ন: স্ত্রীর জন্মদিন পালন করতে ভিক্টোরিয়া এসেছিলেন সপরিবারে, বাজ পড়ে মৃত্যু সুবীরের

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, রবিবার পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টি হলেও, সোমবার থেকে পরিস্থিতি উন্নতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অগস্ট মাসের শুরু থেকেই বৃষ্টি চেনা ছন্দে ছিল। এ মাসের ৬ থেকে ৭ তারিখ, ১২ থেকে ১৪ তারিখ পর্যন্ত নিম্নচাপ এবং মৌসুমী অক্ষরেখার কারণে বৃষ্টি হয়েছে। শেষ দফায় ১৬ তারিখ থেকে বৃষ্টি শুরু হয়েছে। আবহাওয়া বিজ্ঞানীদের দাবি, সেপ্টেম্বর মাসেও বৃষ্টি হবে।