• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিমানের টিকিট গগনচুম্বী

Airport

বন্যার জেরে ট্রেন বন্ধ। বাসও আসছে না। শেষ ভরসা বিমান।

সেই মওকায় চড়চড় করে বেড়েছে টিকিটের দাম। সোমবার বাগডোগরা থেকে উড়ান ছাড়ার ঘণ্টা তিনেক আগে এক যাত্রী ১৭ হাজার টাকা দিয়ে কলকাতার টিকিট কেটেছেন। প্রচুর মানুষ ভিড় করছেন বাগডোগরা বিমানবন্দরে। স্থানীয় ট্রাভেল এজেন্টদের সঙ্গেও যোগাযোগ করছেন টিকিটের জন্য। তবে, দাম শুনে বেশিরভাগই পিছিয়ে আসছেন। যাঁরা নিরুপায়, তাঁরাই বাধ্য হয়ে চড়া দামে টিকিট কাটছেন। ট্রাভেল এজেন্ট ফেডারেশনের পূর্বাঞ্চলের চেয়ারম্যান অনিল পাঞ্জাবি এ দিন জানান, দিন তিনেক আগেও কলকাতা-বাগডোগরা রুটের টিকিট ১৮০০ টাকায় বিক্রি করেছেন। এখন সেটা দাঁড়িয়েছে ১৪-১৫ হাজার টাকায়।

আজ, মঙ্গলবার স্বাধীনতা দিবসে বাগডোগরা থেকে কলকাতায় আসার জন্য একমাত্র স্পাইসজেটের সরাসরি উড়ানের টিকিট পাওয়া যাচ্ছে। দাম প্রায় ১৪ হাজার টাকা। দিল্লি ঘুরে প্রায় ২০ ঘণ্টা পরে কলকাতায় পৌঁছনো বিমানের ভাড়া ২০ হাজারেরও বেশি। বুধবার, ১৬ অগস্ট বাগডোগরা-কলকাতা রুটের সবচেয়ে সস্তায় যে টিকিট এখন মিলছে, তার দাম ১২ হাজার টাকা। ১৫ অগস্ট কলকাতা থেকে বাগডোগরা যাওয়ার টিকিটের দাম এখন ১৫ হাজার টাকা। ১৬ তারিখের দাম তুলনায় দাম। দাম বেড়েছে কলকাতা থেকে গুয়াহাটি যাতায়াতের টিকিটেরও। এই রুটে ১৫ অগস্টের টিকিটের দাম ১১ হাজার টাকার মতো।

বাগডোগরা থেকে প্রতিদিন কলকাতায় ৮টি উড়ান আসে। দিল্লি যায় ৯টি উড়ান। বাগডোগরা বিমানবন্দরের অধিকর্তা রাকেশ সহায় এ দিন বলেন, ‘‘সব উড়ান ভর্তি। সাধারণ দিনে বাগডোগরায় যাত্রী হয় ১৮০০-র মতো। বৃহস্পতিবার তা বেড়ে দাঁড়িয়েছিল ২ হাজার। শুক্র ও শনিবারে যাত্রী ছিলেন ২৫০০ জন। রবিবার তা বেড়ে ২৮০০ হয়েছে।’’ 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন