বিচারক শুনতে চেয়েছিলেন অভিযুক্তের কথা। অভিযুক্ত এলেন। কাঠগড়ায় উঠে বলতে শুরু করলেন, ‘‘আমার স্ত্রী আইপিএস অফিসার ছিলেন। শুধু দেশে কাজ করেননি, দেশের হয়ে বিদেশেও কাজ করেছেন। রাষ্ট্রপুঞ্জেও কাজ করেছেন। তাঁকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে।”

ঘটনাস্থল মেদিনীপুরের বিশেষ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা আদালত। অভিযুক্ত এমভি রাজু। সোমবার তাঁর আইনজীবীরা দাবি করেন, সিআইডি হেফাজতে রাজুর উপর মানসিক অত্যাচার চলছে। এর পরই বিচারক অভিযুক্তের কথা শুনতে চান ও রাজু তাঁর স্ত্রী ভারতী ঘোষের প্রশংসা করেন। এ দিন নতুন অডিয়ো বার্তায় স্বামীর সুরেই ভারতী ফের দাবি করেছেন, গোটা মামলাটাই মিথ্যা। তিনি তা প্রমাণ করেই ছাড়বেন।

এ দিন রাজুকে চার দিন সিআইডি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। একই সঙ্গে বলেছেন, রাজুকে জিজ্ঞাসাবাদের সময় তাঁর আইনজীবীকে থাকতে দিতে হবে।