কলকাতায় একটি বোয়িং ৭৭৭ বিমান তিন দিন ধরে বসে যাওয়ায় এমিরেটস উড়ান সংস্থার কর্তৃপক্ষ বেশ সমস্যায় পড়েছেন। দুবাই থেকে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে উড়ান যায় তাঁদের। কলকাতায় বিমান বসে যাওয়ায় সেই বিশাল উড়ানসূচির অনেকটাই এলোমেলো হয়ে যাচ্ছে বলে সংস্থা সূত্রের খবর।

বিমানটি সারানোর জন্য শনিবার দুবাই থেকে ইঞ্জিনিয়ারদের উড়িয়ে আনা হয়েছিল। তাঁরা বিমানটি সারানোর পরে যে-পরীক্ষা হয়, তাতে আবার ত্রুটি ধরা পড়েছে। নতুন করে রবিবার সকালে আরও এক দল ইঞ্জিনিয়ার দুবাই থেকে কলকাতায় উড়ে এসেছেন। নিয়ে আসা হয়েছে নতুন যন্ত্রাংশ। উড়ান সংস্থা সূত্রের খবর, বিমানের হাইড্রলিক সমস্যা কিছুতেই ঠিক করা যাচ্ছে না। কলকাতা বিমানবন্দরের চার্লি-৩ পার্কিং বে-তে সেই বিমান মেরামতির কাজ চলে রবিবার রাত পর্যন্ত।

৯ অগস্ট, শুক্রবার রাতে বিমানটি দুবাই থেকে এসে যখন কলকাতায় নামে, তখন তাতে কোনও সমস্যা ছিল না। কিন্তু ফিরতি পথে কলকাতা থেকে প্রায় ২৫০ জন যাত্রী নিয়ে দুবাই উড়ে যাওয়ার আগের মুহূর্তে পরীক্ষা করার সময় বিমানে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখতে পান পাইলট। সঙ্গে সঙ্গে ঘোষণা করা হয়, আপাতত বিমান উড়ছে না। যাত্রীদের নেমে যেতে হবে। ইউরোপ বা আমেরিকা যাওয়ার জন্য অনেকেই ওই বিমানে ওঠেন। দুবাই থেকে ‘কানেক্টিং ফ্লাইট’ ধরাই তাঁদের লক্ষ্য। দুবাইগামী বিমানে যান্ত্রিক ত্রুটি ধরা পড়ায় ঘোর সঙ্কটে পড়েন যাত্রীরা। স্থানীয় ইঞ্জিনিয়ারদের সাহায্যে সেই রাতে মেরামতির চেষ্টা চালানো হয়। কিন্তু বিমান ঠিক করা যায়নি। শনিবার সকাল ও রাতে আটকে পড়া যাত্রীদের বেশ কয়েক জনকে দুবাই নিয়ে যাওয়া হয়। তার পরে আটকে পড়া যাত্রীদের প্রায় ২০% রবিবার উড়ে গিয়েছেন।