রাজ্যে কবে বর্ষা ঢুকবে, তা এখনও অনিশ্চিত। কিন্তু নিম্নচাপ অক্ষরেখার কারণে প্রাক বর্ষাবৃষ্টিতে স্বস্তি বজায় থাকবে দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে। রবিবার কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির জেরে অনেকটাই গরম কমেছে। আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তিও উধাও। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস, আগামী বুধবার এবং বৃহস্পতিবার বৃষ্টি আরও বাড়বে। কোনও কোনও জেলায় ভারী বৃষ্টিও হতে পারে।

চলতি সপ্তাহে বুধ-বৃহস্পতিবারের মধ্যে কেরলে বর্ষার আগমন ঘটবে। এমনিতে ১ জুন কেরলে বর্ষা ঢুকে যাওয়ার কথা। কেরলে বর্ষা দেরিতে ঢোকায়, এ রাজ্যেও বর্ষার আগমন পিছিয়ে যেতে পারে।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। সর্বনিম্ন তাপমাত্রাও স্বাভাবিকের থেকে দু’ডিগ্রি কমে দাঁড়িয়েছে ২৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আগামী কয়েক দিন সর্বোচ্চ তাপমাত্রা খুব একটা বৃদ্ধির সম্ভাবনা নেই। তবে কিছুতা হলেও, আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি হতে পারে।

আরও পড়ুন: কেন খুন করত ‘চেন কিলার’? এখনও ধন্দে পুলিশ​

আরও পড়ুন: ১৭ মন্ত্রীর এলাকায় হার, কেউ মিডিয়াকে এড়াচ্ছেন, কেউ বলছেন, গোলমাল ছিল ইভিএম-এ​

বুধ এবং বৃহস্পতিবার মুর্শিদাবাদ, বীরভূম, নদিয়া, পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, দুই ২৪ পরগনা, হুগলিতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে। কোথাও কোথাও ৪০ থেকে ৬০ কিলোমিটার গতিবেগে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। কলকাতাতেও বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। ফলে চলতি সপ্তাতে তাপমাত্রা খুব একটা বৃদ্ধির সম্ভাবনা নেই। দক্ষিণবঙ্গের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গেও বৃষ্টি হবে। পরের সপ্তাহের মধ্যে এ রাজ্যে বৃষ্টি ঢুকে যাওয়ার কথা। তবে সবটাই নির্ভর করছে কেরলে বর্ষা ঢোকার উপর।