বিশ্বভারতীর সমাবর্তনের বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভাষণে বিভিন্ন কেন্দ্রীয় প্রকল্পের ‘প্রচার’ এবং সেই সব প্রকল্পে পড়ুয়াদের শামিল হওয়ার আহ্বান জানানোয় প্রশ্ন তুলেছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল।

‘বিশ্বভারতী ও  আচার্যপদের মর্যাদা’র কথা মাথায় রেখেই এ নিয়ে বিশদ কোনও প্রতিক্রিয়া জানাতে চায়নি শাসক তৃণমূল। দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘সমাবর্তনের মঞ্চে সরকারি প্রকল্পের প্রচার বেমানান। আজ এর বেশি কিছু বলব না।’’ প্রধানমন্ত্রীর এই ভূমিকার অবশ্য কড়া সমালোচনা করেছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘‘আচার্য নয়। সমাবর্তনে প্রধানমন্ত্রীর কথা শুনে মনে হচ্ছিল কোনও রাজনৈতিক নেতার নির্বাচনী বক্তৃতা। শুধু তাই নয়, বিশ্বভারতীতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মঞ্চে দাঁড়িয়ে মোদী একবারও ইন্দিরা গাঁধীর উল্লেখ করলেন না দেখে বিস্মিত হয়েছি।’’ সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, ‘‘সমাবর্তনে সরকারি প্রকল্পের প্রচার সঙ্কীর্ণ রাজনৈতিক মানসিকতার প্রকাশ। প্রধানমন্ত্রীর পদমর্যাদার সঙ্গে মেলে না।’’

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে দাঁড়িয়ে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ব্যাখ্যা, ‘‘গুরুদেবের গ্রামোন্নয়নের ভাবনায় কেন্দ্রীয় সরকার বিভিন্ন প্রকল্প নিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী সে কথাই উল্লেখ করেছেন মাত্র।’’