একদম প্রথম ছবি থেকেই নিজেকে ব্যতিক্রমী বলে প্রতিপন্ন করেছেন আয়ুষ্মান খুরানা। ‘ভিকি ডোনর’ জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিল। তার পর কয়েকটি ছবি হয়তো চলেনি। কিন্তু আয়ুষ্মান নিজের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেননি। তাঁর প্রতিটি ছবিই আলাদা ঘরানার। প্রত্যেক বারই ঝুঁকি নিয়েছেন। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই সফল হয়েছেন। ‘দম লগাকে হইশা’র পর থেকে আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে। 

‘বরেলি কী বরফি’, ‘অন্ধাধুন’, ‘বধাই হো’... তাঁর জয়যাত্রা চলছে। অভিনেতা তাঁর দর্শককেও এই কৃতিত্বের ভাগীদার করেছেন। তাঁর কথায়, ‘‘দর্শক আমাকে সব ধরনের পরীক্ষা করার ছাড়পত্র দিয়েছেন। তাই আমিও আলাদা জ়ঁর পরখ করতে পারছি। এমন বিষয়ই বাছি, যেখানে কিছু বলার আছে। তবে  বিনোদনের মোড়কেই সেটা বলার চেষ্টা চলছে।’’

কিছু দিন পরেই মুক্তি পাচ্ছে আয়ুষ্মানের ‘আর্টিকল ফিফটিন’। অনুভব সিংহ পরিচালিত এই ছবি সত্যি ঘটনা অবলম্বনে তৈরি। যাকে ইনভেস্টিগেটিভ ড্রামার মোড়ক দেওয়া হয়েছে। ‘স্ত্রী’ ছবির পরিচালক অমর কৌশিকের ‘বালা’য় আয়ুষ্মান অভিনয় করছেন। সেখানে দেখানো হবে, অভিনেতা অসময়ে টাক পড়ে যাওয়ার সমস্যায় ভুগছেন। এই ছবিটি মজার ছলে বলা হিউম্যান ড্রামা। আনন্দ এল রাইয়ের প্রযোজনায় আয়ুষ্মানের ‘শুভ মঙ্গল সাবধান’ প্রশংসিত। সেই ছবির সিকুয়েল আসছে, ‘শুভ মঙ্গল জ়াদা সাবধান’। এ বারের বিষয় সমকামিতা। ‘‘বিষয়গুলো আলাদা ভাবে শুনলে জটিল মনে হতে পারে বা আগ্রহ না-ই জাগতে পারে। কিন্তু গল্প বলার ধরনে সেটা আকর্ষক হয়ে উঠতে পারে,’’ বলছেন আয়ুষ্মান। তাঁর গত তিনটি ছবির বক্স অফিসই বলে দিচ্ছে, ঠিক পথেই এগোচ্ছেন অভিনেতা। 

প্রমাণ হয়ে গিয়েছে, কনটেন্ট ইজ় কিং। যে কারণে নতুন পরিচালক বা চিত্রনাট্যকারের কনসেপ্টে ছবি করতেও আপত্তি নেই আয়ুষ্মানের। তাঁর ‘বালা’র মূল গল্প যেমন টলিউড পরিচালক পাভেলের। যদিও এর চিত্রনাট্য কে লিখেছেন, তা নিয়ে বিতর্ক চলছে। শ্রীরাম রাঘবন, সুজিত সরকারের মতো প্রতিষ্ঠিত পরিচালকের পাশাপাশি অমিত শর্মা, রাজ শাণ্ডিল্যের মতো নতুনদের সঙ্গেও কাজ করছেন তিনি।

অন্যান্য অভিনেতার তুলনায় আয়ুষ্মানের হাতে ছবির সংখ্যাও বেশি। ডেবিউ ডিরেক্টর রাজ শাণ্ডিল্যর ‘ড্রিম গার্ল’ ছবিতে তিনি আবার অন্য চমক দিতে চলেছেন। ছবির প্রথম লুকে তাঁকে শাড়ি পরা অবস্থায় দেখা গিয়েছে। এখানে নাকি তিনি পুরুষ-মহিলা দু’ধরনের চরিত্রেই অভিনয় করবেন। এ দিকে অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে জুটি বেঁধে তিনি সুজিত সরকারের ‘গুলাবো সিতাবো’ ছবিতেও অভিনয় করতে চলেছেন।