আগামী ছবি ‘পদ্মাবতী’র জন্য একেবারে টানটান ‘প্যাক্‌ড’ চেহারা তৈরি করেছেন শাহিদ কপূর। ‘রঙ্গুন’ ছবির জন্যও তাঁকে পেটানো চেহারা তৈরি করতে হয়েছিল। সেখানে শাহিদ ছিলেন আর্মি অফিসারের চরিত্রে। কিন্তু ‘পদ্মাবতী’র জন্য আরও অনেক বেশি খাটতে হচ্ছে তাঁকে। পরিচালক সঞ্জয় লীলা ভং‌সালী অনেক বেশি খুঁতখুঁতে। তার উপর উল্টো দিকে রণবীর সিংহের মতো পারফেকশনিস্ট।

শাহিদ ছবির জন্য একদম রাজপুত যোদ্ধার মতো চেহারা তৈরি করেছেন। পদ্মাবতীর স্বামী রাজা রতন সিংহের চরিত্রে তিনি। নিজের ডায়েটও একেবারে বদলে ফেলেছেন স্রেফ এই চরিত্রটার জন্যই। কানাডা থেকে বিশেষ শেফ এসেছেন তাঁর জন্য। যাঁর হাতেই শাহিদের খাওয়াদাওয়ার দায়িত্ব। এ দিকে শাহিদ আবার ভেজিটেরিয়ান। তাই শাকসবজি আর ফলের উপর ভিত্তি করেই তাঁর খাদ্যতালিকা তৈরি করেছেন শেফ কেলভিন। তিনটে বড় মিল এবং দিনে দু’বার স্ন্যাক্স রয়েছে শাহিদের ডায়েটে। যেখানে প্রচুর সবুজ সবজি, হাই প্রোটিন সমৃদ্ধ শস্য আর স্বাস্থ্যকর কার্বোহাইড্রেট রাখা হয়েছে। কড়া নিয়মের খাওয়াদাওয়ার বাইরে শাহিদের জিম-চর্চা তো চলছেই।

শাহিদের কথায়, ‘‘আমি চিরকালই ফিটনেস সচেতন। হয়তো নিরামিষাশী বলে একটু মুশকিল হয়। কিন্তু আমি নিজের চেহারা নিয়ে স্যাটিসফায়েড।’’ শেফ কেলভিন জানাচ্ছেন, ব্যস্ত শ্যুটিং শিডিউলের ফাঁকে শাহিদকে তিনি নারকোলের দুধ দিয়ে তৈরি নাগেট্স খেতে দিয়েছেন। কারণ, শাহিদের এমনিতে মিষ্টি খাওয়া বারণ। আর্টিফিশিয়াল সুগার তো চলবেই না। নুন আর মশলাও তাঁর রান্নায় মোটেই দেওয়া হচ্ছে না। গরমের দিনে কয়েক টুকরো আম খাওয়ার অনুমতি অবশ্য মিলেছে শাহিদের।

দেখা যাচ্ছে, মাছ-মাংস না খেয়েও দিব্যি পেশিবহুল চেহারা তৈরি করা যায়। অন্তত শাহিদ তার জলজ্যান্ত প্রমাণ।