বাঙালি চরিত্র, বাংলার কালীমন্দির আর খাওয়াদাওয়ায় ষোলোআনা বাঙালিয়ানা— সব মিলে গেল হিন্দি ধারাবাহিকের হাত ধরে। একতা কপূর প্রায় বছর সতেরো পরে টিভির পর্দায় ফিরিয়ে আনছেন অনুরাগ বসু-প্রেরণা শর্মার জাদু। সৌজন্যে ‘কসৌটি জ়িন্দেগি কে টু’। তার জন্যই শহরে এসেছিলেন ধারাবাহিকের প্রযোজক এবং চরিত্রাভিনেতারা। তবে কলকাতায় এসেই সোজা চলে গিয়েছিলেন কালীঘাটে। পুজো দিয়ে বাঙালি রেস্তরাঁয় ব্যঞ্জনপর্ব সেরেছেন তাঁরা। একতা বললেন, ‘‘কয়েক বছর আগে কলকাতায় ছুটি কাটাতে এসে একটি ধারাবাহিকের প্রোমোয় প্রথম এরিকাকে দেখি। তখনই মনে হয়েছিল, প্রেরণাকে খুঁজে পেয়েছি।’’ প্রেরণার চরিত্রে এরিকা ফার্নান্ডেজ় এবং অনুরাগের ভূমিকায় অভিনয় করছেন পার্থ সমথন। সতেরো বছর আগেকার চরিত্র ফিরিয়ে আনলে আদৌ এগিয়ে যাওয়া দর্শক তা মেনে নেবেন? ‘‘অনুরাগের চরিত্র আজকের দিনের চেয়েও এগিয়ে। আর প্রেরণা আমাদের মতোই মাল্টিটাস্কার। তবে মিউজ়িক আর মেজাজ এক রাখা হচ্ছে,’’ আত্মবিশ্বাস একতার গলায়।