Short Story

Short story by Sraboni karmakar

ভাড়াটে

আজ এত বছর পর তাই অনুপমাকে দেখে খুব ভাল লাগল মৃদুলার। হনহনিয়ে এগিয়ে যেতেই অনুপমাও দেখতে পেলেন ওকে
painting

চন্দনবন

বয়স তো কম হল না। বন্ধুদের কেউ কেউ মহাশূন্যে পাড়ি দিয়েছে। স্বামীও তো সাত তাড়াতাড়ি চলে গিয়েছে সেই পথে।
painting

পৌরাণিক

প্রতি বছর ডিসেম্বরের শেষ রবিবার পুপুলের পিসিদের পাড়ার একটা ক্লাব, নানা রকম সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের...
clock

পথে হল দেরি

খে দিদি বললেও মনে মনে মেঘনা জানে যে দিদাটাই সঠিক সম্বোধন হয়!
illustration

খট্টাঙ্গপুরাণ

লোকেরা যারা কিনা মুন্নিকে দেখলেই রেগে উঠত, তারাই চাঁদা তুলে পাড়ায় একটি হনুমান মন্দির করে দেয়।
painting

স্বপ্নে যা আসে

রণজয়ের বহু বেচাল আর বেলাইনের কথা জানে আত্রেয়ী। নেহাত কিছু বলে না। দরকারও হয় না। আত্রেয়ীর সামান্য...
painting

চিঠি

ছেলেবেলায় বেশ ক’বছর চন্দ্রপুরে কাটিয়েছিল সুপ্রিয়ারা। এই বসুবাড়ির আশেপাশেই কোথাও ভাড়া থাকত ওরা।
Painting

নেক্সট

পুরুষের গলা পাতলা হলে ব্যক্তিত্বের ওজন কমে যায়। কিন্তু এই গলাটা যেন ডাক্তারবাবুকে আরও রহস্যময় করে...
Painting

এক টুকরো কালিম্পং

ছাদে এসে চারদিকে তাকাতে চেনা পাড়াটা বড় অচেনা মনে হয় হঠাৎ। উত্তর কলকাতার এই গলিতে অধিকাংশ বাড়িই...
paiting

নতুন প্রতিবেশী

হঠাৎ উপরে ফার্নিচার টানার আওয়াজ হতে সম্বিত ফিরল কুন্তলের। কোন সময় অন্যমনস্ক হয়ে যে অতীতে পাড়ি...
Painting

বাইক বয়

হরিদা তেতে আগুন। হেঁড়ে গলায় চেঁচাচ্ছে, ‘‘আরে, ডেলিভরি বয় কম আজ দোকানে। দিনটা কী পড়েছে দেখছেন না?’’
sketch

উপলব্ধি

না, এই ঐশীকে নিয়ে সত্যিই আর পারা যায় না। আজ বাজারে বড় মাছ থাকলেও সেগুলো খুব একটা টাটকা ছিল না।