Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

ভর্তির সময়সীমা বৃদ্ধি স্নাতকোত্তরে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৬ নভেম্বর ২০২০ ০৪:৩৭
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

অতিমারির মধ্যে ঝুঁকি নিয়ে তড়িঘড়ি পরীক্ষা নিয়ে ফল ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু স্নাতক স্তরের মার্কশিট না-পাওয়ায় স্নাতকোত্তরে ভর্তি হতে পারছেন না ছাত্রছাত্রীরা। পোর্টাল-বিভ্রাটে ভর্তির আবেদন করা যাচ্ছে না। ওয়ানটাইম পাসওয়ার্ড (ওটিপি) না-পাওয়ায় আবেদন সম্পূর্ণ হচ্ছে না। এই অবস্থায় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তরে ভর্তির সময়সীমা ১০ নভেম্বর থেকে বাড়িয়ে ১৪ নভেম্বর করা হয়েছে বলে রেজিস্ট্রার দেবাশিস দাস বৃহস্পতিবার জানান।

প্রশ্ন উঠছে, মার্কশিট পাচ্ছেন না স্নাতকোত্তরের পরীক্ষার্থীরাও। তাঁদের অনেকে বিএডে ভর্তি হতে চান। কেউ কেউ আবেদন করতে চান উচ্চশিক্ষার জন্য। কারও কারও মেধাবৃত্তি পাওয়ার কথা। কী হবে তাঁদের? এই নিয়ে উদ্বিগ্ন পড়ুয়াদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। সম্পূর্ণ মার্কশিট না-পেয়ে রবীন্দ্র সরোবর থানায় জেনারেল ডায়েরি করেছেন নেতাজি সুভাষ মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের একাংশ।

২ নভেম্বর থেকে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রায় ৩০০ স্নাতকোত্তর বিষয়ে ভর্তি প্রক্রিয়া চলছে মাত্র একটি পোর্টালে। বার বার পোর্টালটি ক্র্যাশ করছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের খবর, এ দিন থেকে আবেদনের ক্ষেত্রে ওটিপি-র বিষয়টি রাখা হচ্ছে না। পড়ুয়ারা আবেদনের কাজ শুরু করে পরে মার্কশিট পেলে তা আপলোড করতে পারবেন। উপাচার্য সোনালি চক্রবর্তী বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, ৩১ অক্টোবরের মধ্যে সব মার্কশিট তৈরি হয়ে যাবে। তবু দেরি কেন? মার্কশিট না-পাওয়া এবং ওটিপি-বিভ্রাট নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের হেল্পলাইনে ফোন করেও উত্তর মিলছে না। দ্রুত সমস্যা মেটানোর দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে স্মারকলিপি দিয়েছে এসএফআই।

Advertisement

সমস্যা মেটাতে সব কর্মীকে দ্রুত বিশ্ববিদ্যালয়ে আনার জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেছে শিক্ষক সমিতি (কুটা)। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন ম্যানেজমেন্ট পঠনপাঠন সংস্থা আইআইএসডব্লিউবিএম-এর সান্ধ্য শাখার চূড়ান্ত সিমেস্টারের ফল প্রথমে ওয়েবসাইটে পাওয়াই যায়নি। পরে সংশ্লিষ্ট বিভাগের চেষ্টায় কিছুটা কাজ হলেও ফিন্যান্সে স্পেশালাইজেশন করেছেন, এমন ১১ জনকে অকৃতকার্য দেখানো হয়েছে। পরে বিশ্ববিদ্যালয় জানায়, তাঁরা পাশ করেছেন। মার্কশিট পেতে কয়েক দিন সময় লাগবে।

অনলাইনে অসম্পূর্ণ ফল দেওয়ায় অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তরে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারছেন না বলে জানান নেতাজি সুভাষ মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়াদের একাংশ। তাঁদের অভিযোগ, অনলাইনে সার্বিক গ্রেড থাকলেও বিষয়ভিত্তিক নম্বর নেই। মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য শুভশঙ্কর সরকার বলেন, ‘‘স্নাতকের চূড়ান্ত বর্ষের ফল অনলাইনে দু’টি লিঙ্কে দেওয়া আছে। সব লিঙ্ক খুঁটিয়ে দেখলেই পুরো ফল পাবেন পড়ুয়ারা।’’

আরও পড়ুন

Advertisement