Advertisement
১৪ জুলাই ২০২৪
Parrots

Wildlife: যাত্রীবাহী বাসে পাখি পাচার! দুর্গাপুরে বন দফতরের অভিযানে উদ্ধার ৬৫৮টি টিয়া

ডব্লিউসিসিবি-র পূর্বাঞ্চলীয় ডিরেক্টর অগ্নি মিত্র আনন্দবাজার অনলাইনকে জানিয়েছেন, নির্দিষ্ট খবরের ভিত্তিতেই অভিযান চালানো হয়।

দুর্গাপুরে উদ্ধার খাঁচা-বোঝাই টিয়া।

দুর্গাপুরে উদ্ধার খাঁচা-বোঝাই টিয়া। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
দুর্গাপুর শেষ আপডেট: ২৬ অগস্ট ২০২১ ২১:৪৭
Share: Save:

পশ্চিম বর্ধমান জেলার দুর্গাপুরে জাতীয় সড়কে একটি দূরপাল্লার বাসে তল্লাশি চালিয়ে ৬৫৮টি টিয়াপাখি উদ্ধার করল, উদ্ধার করল ‘কেন্দ্রীয় বন্যপ্রাণ অপরাধ দমন ব্যুরো’ (ডব্লিউসিসিবি), সিআইডি এবং রাজ্য বন দফতরের যৌথ বাহিনী। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা নাগাদ দুর্গাপুরের সিটি সেন্টারের অদূরে ওই অভিযানে পাখি পাচারের অভিযোগে চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে বাসের চালক এবং তার সহকারীও রয়েছে।

ডব্লিউসিসিবি-র পূর্বাঞ্চলীয় ডিরেক্টর অগ্নি মিত্র আনন্দবাজার অনলাইনকে জানিয়েছেন, নির্দিষ্ট খবরের ভিত্তিতেই অভিযান চালানো হয়। তাঁদের কাছে খবর ছিল, উত্তরপ্রদেশ থাকে আসা ওই বাসটিতে বেআইনি ভাবে প্রচুর টিয়া আনা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার সকালে বাসটি ঝাড়খণ্ড-পশ্চিমবঙ্গ সীমানাবর্তী ডুবুরডিহি চেকপোস্ট পেরনোর পরেই সেটি অনুসরণ করে আটকানো হয়। অগ্নি বলেন, ‘‘উদ্ধার হওয়া টিয়াগুলির অধিকাংশই ‘রোজ রিংগড প্যারাকিট’ প্রজাতির। ভারতীয় বন্যপ্রাণ সংরক্ষণ আইন অনুযায়ী এদের ধরা বা পোষা নিষিদ্ধ এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ।’’

প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, পাখিগুলি বর্ধমানে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। পাচারকারীদের একজন পলাতক বলেও তদন্তে জানা গিয়েছে। দুর্গাপুরের বিভাগীয় বনাধিকারিক নীলরতন পাণ্ডা জানিয়েছেন, ধৃত চার জনকে বৃহস্পতিবার দুর্গাপুর মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন। এই পাখি পাচারের সঙ্গে আর কারা যুক্ত রয়েছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE