×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ জুন ২০২১ ই-পেপার

শয্যা বাড়ছে বড়মায়

নিজস্ব সংবাদদাতা
নন্দীগ্রাম, পাঁশকুড়া ২৪ এপ্রিল ২০২১ ০৬:৪১
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

অবশেষে পাঁশকুড়ার বড়মা মাল্টি স্পেশালিটি হাসপাতালে করোনা রোগীদের জন্য শয্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল স্বাস্থ্য দফতর। সরকারি উদ্যোগে বড়মায় ৫০টি শয্যা নিয়ে ফের শুরু হচ্ছে করোনা চিকিৎসা। পাশাপাশি, পাঁশকুড়া সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালটিকে কোভিড হাসপাতাল হিসাবে গড়ে তোলার তোড়জোড় পুরোদমে শুরু করেছে স্বাস্থ্য দফতর।

গত বছর মেচগ্রামের বড়মা মাল্টি স্পেশালিটি হাসপাতালে সরকারি উদ্যোগে শুরু হয়েছিল কোভিড চিকিৎসা। প্রথম দফায় ১০০টি এবং পরে তা বাড়িয়ে ১৮০টি শয্যা বরাদ্দ করা হয়। সেখানে ছিল করোনা চিকিৎসার লেভেল-৪ পরিকাঠামো।

প্রথম দফার করোনা সংক্রমণ কমে যাওয়ায় ১০টি শয্যা রেখে হাসপাতালের বাকি শয্যাগুলি ছেড়ে দেয় রাজ্য সরকার। সম্প্রতি করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার পরেও বড়মায় শয্যা সংখ্যা না বাড়ানোয় এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ দেখা যায়।

Advertisement

এমন আবহে বৃহস্পতিবার রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানায় যে, বড়মায় ১০টির বদলের ৫০টি শয্যা নিয়ে ফের করোনা চিকিৎসা শুরু হতে চলেছে। এই ৫০টি শয্যার মধ্যে থাকছে ১১টি সিসিইউ, ১০টি এইচডিইউ এবং ২৯টি সাধারণ শয্যা। বাকি শয্যাগুলিতে বড়মা কর্তৃপক্ষ নিজেদের উদ্যোগে কোভিড চিকিৎসা করাতে পারেন।

অন্যদিকে, পাঁশকুড়া সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালটিকে ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট করোনা হাসপাতাল হিসাবে গড়ে তোলার জন্য বুধবারই বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে স্বাস্থ্য দফতর। প্রসূতি বিভাগ ছা়ড়া বন্ধ হবে অন্য পরিষেবার বিভাগ। স্বাস্থ্য দফতরের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার হাসপাতালের সামনে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন এলাকার মানুষজন। কিন্তু সেই ক্ষোভ এবং আপত্তি এড়িয়ে ওই সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে কোভিড চিকিৎসার জন্য যাবতীয় পরিকাঠামো গড়ার তোড়জোড় শুরু হয়েছে বলে জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক বিভাস রায় বলেন, ‘‘বড়মা হাসপাতালে শয্যা সংখ্যা বাড়িয়ে ৫০ করা হয়েছে। পাঁশকুড়া সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে কোভিড চিকিৎসা শুরুর জন্য সমস্ত রকমের তোড়জোড় শুরু হয়েছে।’’

করোনার সঙ্গে লড়ার প্রস্তুতি চলছে নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্য জেলাতেও। আসন্ন পরিস্থিতি সামাল দিতে নন্দীগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ১০০ শয্যার একটি আলাদা বিভাগ তৈরিতে উদ্যোগী হয়েছে ওই জেলা স্বাস্থ্য দফতর। রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের তরফে এই সংক্রান্ত একটি নির্দেশিকা জারি হয়েছে। নন্দীগ্রাম স্বাস্থ্য জেলার এক আধিকারিক বলেন, ‘‘রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের নির্দেশে নন্দীগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে পঞ্চম তলায় ৯০ শয্যা বিশিষ্ট কোভিড ওয়ার্ড তৈরি করা হচ্ছে। আর ১০ শয্যার সিসিইউ কোভিড রোগীদের জন্য নেওয়া হচ্ছে। সব মিলিয়ে বরাদ্দ ১০০টি শয্যা।’’

উল্লেখ্য, গত বছর নন্দীগ্রাম সুপার স্পেশালিটিতে করোনা রোগীদের জন্য শুধু আইসোলেশন ওয়ার্ড ছিল। এবার সেখানে আক্রান্তদের চিকিৎসার পরিকাঠামো গড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও হাসপাতালের অন্য সব বিভাগ আগের মতোই চালু থাকবে বলে জানাচ্ছেন কর্তৃপক্ষ।

Advertisement