Advertisement
২৪ জুন ২০২৪
Justice Abhijit Gangopadhyay

টেটে অ্যাপটিটিউড টেস্ট ছাড়াই নিয়োগ কেন, এ বার ইন্টারভিউয়ারদের তলব বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের

২০১৪ সালের টেটের প্রেক্ষিতে ২০১৬ সালে যে নিয়োগ প্রক্রিয়া সংগঠিত হয়, তাতে যাঁরা ইন্টারভিউ নিয়েছিলেন, এ বার তাঁদের তলব করলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। পাঁচ জেলার কয়েক জনকে তলব।

Image of Calcutta HC Justice Abhijit Gangopadhyay

যাঁরা ২০১৬ সালে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় ইন্টারভিউ নিয়েছিলেন, এ বার তাঁদের হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। — ফাইল ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ১৮:০৩
Share: Save:

প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের হলফনামা থেকে এটা স্পষ্ট যে, প্রাথমিকে ২০১৬ সালের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় কোনও অ্যাপটিটিউড টেস্ট নেওয়া হয়নি। ওই টেস্ট না নিয়েই গড়ে একটা নম্বর দেওয়া হয়েছে। এমনটাই পর্যবেক্ষণ বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের। যাঁরা ইন্টারভিউ নিয়েছিলেন, এ বার তাঁদের হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিলেন তিনি।

২০১৪ সালের টেটের প্রেক্ষিতে ২০১৬ সালে যে নিয়োগ প্রক্রিয়া সংগঠিত হয়, তাতে যাঁরা ইন্টারভিউ নিয়েছিলেন, এ বার তাঁদের তলব করলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। পাঁচ জেলার বেশ কয়েক জন ইন্টারভিউয়ারকে তলব করা হয়েছে। ওই পাঁচ জেলা হল হুগলি, হাওড়া, উত্তর দিনাজপুর, কোচবিহার এবং মুর্শিদাবাদ। আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি হাজিরা দিতে হবে তাঁদের।

আদালত সূ্রে জানা গিয়েছে, ওই দিন রূদ্ধদ্বার এজলাসে হবে জিজ্ঞাসাবাদ। এজলাসে সংশ্লিষ্ট আইনজীবীরা ছাড়া আর কেউ থাকবেন না। যাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য ডাকা হয়েছে, তাঁদের যাতায়াতের খরচ দেওয়ার জন্য পর্ষদকে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি প্রথমে জানিয়েছিলেন, এই ইন্টারভিউয়ারদের যাতায়াতের খরচ বাবদ ২,০০০ টাকা দিতে হবে পর্ষদকে। কিন্তু পর্ষদের আইনজীবী জানান, যিনি হাওড়া থেকে আসবেন, তাঁকেও কেন ২০০০ টাকা দিতে হবে? তাঁর কথায়, ‘‘মুর্শিদাবাদ, উত্তর দিনাজপুর, কোচবিহার থেকে যাঁরা আসবেন, তাঁরাও যাতায়াত ভাড়া বাবদ ২,০০০ টাকা পাবেন। আবার যাঁরা হাওড়া-হুগলি থেকে আসবেন, তাঁরাও ২০০০ টাকা পাবেন? এটা কী করে হয়?’’ এর পরেই বিচারপতি নির্দেশ দিয়ে বলেন, ‘‘কোচবিহার, উত্তর দিনাজপুর ও মুর্শিদাবাদের ইন্টারভিউয়াররা পাবেন ২,০০০ টাকা। হাওড়া, হুগলির ইন্টারভিউয়াররা পাবেন ৫০০ টাকা।’’

টেট দুর্নীতিকাণ্ডে বহু পরীক্ষার্থীর বয়ান নিয়েছেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। তাঁরা জানিয়েছেন যে, তাঁদের অ্যাপটিটিউট টেস্ট নেওয়া হয়নি। এই অ্যাপটিউট টেস্ট কী? শ্রেণিকক্ষে প্রার্থীরা কোনও বিষয় কী ভাবে পড়াবেন, তা ইন্টারভিউয়ের সময় চক, ডাস্টার নিয়ে ব্ল্যাকবোর্ডে দেখাতে হয়। অনেক প্রার্থীই অভিযোগ করেছেন, তাঁদের বারান্দায় ইন্টারভিউ নেওয়া হয়েছে। কোনও ক্লাসে ইন্টারভিউ নেওয়া হয়নি। তার পরেই বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তাঁর পর্যবেক্ষণ, বেশির ভাগ প্রার্থীর অ্যাপটিটিউট টেস্ট হয়নি। কেন হয়নি, তা জানতেই এ বার তলব করলেন তাঁদের, যাঁরা প্রার্থীদের ইন্টারভিউ নিয়েছিলেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE