×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৫ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

সল্টলেকে মিলবে থিম এবং সাবেক

কাজল গুপ্ত
২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ০০:৩৯

এ বার পুজোয় মধ্য ও দক্ষিণ কলকাতাকে চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছেন সল্টলেকের পুজো উদ্যোক্তারা। এখানে পাশাপাশি রয়েছে সাবেক এবং থিম।

নয়া প্রজন্মদের নিয়ে ‘মিরুজিন’ নামের একটি দলের ভাবনায় এফ সি ব্লকের মণ্ডপ কার্যত ক্যামেরা। এক পাশে দেখানো হবে জনপ্রিয় ভারতীয় চলচ্চিত্রের টুকরো দৃশ্য।

নতুনদের কাঁধে ভর করে সাফল্যের সারিতে এ কে ব্লক। ভাবনা ঐক্যসাধনে মুক্তি। খেজুর তালপাতা-সহ পরিবেশবান্ধব উপকরণ ও সীসামুক্ত রঙের ব্যবহার থাকছে মণ্ডপ ও প্রতিমায়। রকমারি চেয়ার নিয়ে গড়ে উঠেছে বি জে ব্লকের মণ্ডপ। প্রতিটি চেয়ারের অভিব্যক্তি আলাদা।

Advertisement

সল্টলেকের পুজোর তালিকায় কয়েক বছর ধরে এগিয়ে এফ ডি ব্লক। এ বারের ভাবনা ‘হ্যারি সাহেবের দুগ্গা দালান’। ভাবনায় থাকছে এক ব্রিটিশ সাহেব ও তাঁর হিন্দু স্ত্রীর বাড়ি ও তাঁদের পুজো। তাঁদের মৃত্যুর পরে এলাকাবাসী সেই পুজো করে চলেছেন।

সল্টলেকে থিমের প্রবেশ বি ই (পূর্ব) ব্লকের হাত ধরে। থিম কুণ্ডলিনী থেকে সৃষ্টির রহস্য। ডিম্বাকৃতি মণ্ডপে সাধিকারূপী দেবী। পরিবেশ বাঁচাও, বন্যপ্রাণী সংরক্ষণে জোর দাও এই প্রচারে এ ই (পার্ট ওয়ান)। শীতের আগেই বি বি ব্লকে বসছে সার্কাস। ট্রাপিজের খেলা, জোকার-সহ পুরো সার্কাস হাজির।

এ বি ব্লক মণ্ডপ যেন ‘হীরক রাজার দেশ’ চলচ্চিত্রের ক্ষুদ্র রূপ। মণ্ডপের ভিতরে হীরের খনির দৃশ্য, যেখানে প্রতিবাদী সব চরিত্রের দেখা মিলবে। চিচিং ফাঁক থিম নিয়ে হাজির বি কে ব্লক। আলিবাবা পাহাড়ের গুহায় ঢুকে যে ভাবে ধনসম্পদের সন্ধান করেছিল সেই ভাবনাই ফুটিয়ে তোলা হচ্ছে এখানে।

প্রিন্সেপ ঘাটকে সামনে রেখে কলকাতার বিভিন্ন ঘাটের গল্প বলবে এ ডি ব্লক। প্রতিমা সাবেক একচালা। নূপুর ও বালতির ব্যবহারে মণ্ডপ সাজাচ্ছে সি বি ব্লক। পোল্যান্ডের একটি শহরের বাড়িকে নকল করে উল্টো বাড়ির থিম সাজিয়েছে বি এফ ব্লক। মণ্ডপে তাই চেয়ার সবই সিলিং-এ। সবুজায়ন নিয়ে মেতেছে বি এইচ ব্লক। মণ্ডপের মাঝে জলাশয়।

থিমের ভিড়ে কিন্তু হারতে নারাজ সাবেক পুজো। যেমন লাবণি আবাসনের পুজো। সল্টলেকে ম্যাডস্ক স্কোয়্যার বলে পরিচিত। গ্রামীণ শিল্পকলাকে সামনে রেখে সাবেক পুজোর আয়োজন। আই বি ব্লকের মণ্ডপ সাজছে বনেদি বাড়ির নাটমন্দিরের আদলে। ডাকের সাজের প্রতিমা। রাজবাড়ির আদলে মণ্ডপ নিয়ে হাজির এইচ বি ব্লক।

গ্রামীণ পরিবেশ তুলে আনছে এ জে ব্লক। চারচালার মন্দিরে প্রতিমা। চাতালে বসে পুজো দেখার পরিবেশ তুলে ধরা হবে বলে জানান উদ্যোক্তারা। সাবেক পুজোয় গ্রামীণ শিল্পকলার মিশেল থাকছে এ এ ব্লক পুজোয়। মন্দিরের আদলে মণ্ডপ, সাবেক প্রতিমা। জি ডি ব্লকে হচ্ছে বুলগেরিয়ার গির্জার আদলে মণ্ডপ। মানানসই প্রতিমা।

পাশাপাশি এ এল, সি এ, সি জি, আই এ, এইচ এ, ডি এল, সি জি, এ ই (পার্ট টু), শ্যামলি আবাসন, ফাল্গুনি, শ্রাবণি, পূর্বাচল আবাসনের একাধিক ক্লাস্টার, সৌরভ আবাসন প্রমুখ পুজো কমিটিরাও সাবেক ঘরানাকে ধরে রেখে মেতে উঠছেন এ বারের উৎসবে।

Advertisement