Advertisement
১৮ জুলাই ২০২৪

আইন বদলে ক্ষোভ আইন বিশ্ববিদ্যালয়ে

আইন বিশ্ববিদ্যালয়ে রাজ্যের পড়ুয়াদের জন্য ৩০% আসন সংরক্ষণের উদ্দেশ্যে গত সপ্তাহে আইন সংশোধন করা হয়েছে বিধানসভায়।

—ফাইল চিত্র।

—ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৭ নভেম্বর ২০১৮ ০৪:১৯
Share: Save:

পশ্চিমবঙ্গের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব জুরিডিক্যাল সায়েন্সেস (এনইউজেএস) নিয়ে বিধানসভায় যে-আইন সংশোধন হয়েছে, সেই ব্যাপারে আপত্তি তুলেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের একাংশ। সেখানকার ছাত্র সংগঠনের দাবি, এই বিশ্ববিদ্যালয়ের জাতীয়করণ হোক।

আইন বিশ্ববিদ্যালয়ে রাজ্যের পড়ুয়াদের জন্য ৩০% আসন সংরক্ষণের উদ্দেশ্যে গত সপ্তাহে আইন সংশোধন করা হয়েছে বিধানসভায়। অভাবী ও মেধাবী পড়ুয়াদের বিনা খরচে পড়ার ব্যবস্থাও করা হয়েছে। পড়ুয়াদের টিউশন ফি ঠিক করার বিষয়ে কথা বলার অধিকার দেওয়া হয়েছে রাজ্যকে। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তির জন্য কী ভাবে পরীক্ষা নেওয়া হবে, তা নির্ধারণের ক্ষেত্রেও মতামত দিতে পারবে রাজ্য।

পড়ুয়াদের একাংশের অভিমত, এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বশাসনেই হাত পড়ছে। এর ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের মান নেমে যাবে। ছাত্র সংগঠনের সহ-সভানেত্রী গাথা নাম্বুত্রি জানান, রাজ্য এই বিশ্ববিদ্যালয়কে তেমন কিছু সাহায্য করে না। অথচ আইন সংশোধনের মাধ্যমে তারা এটিকে নিয়ন্ত্রণ করতে চাইছে। এটা তাঁরা তা মানবেন না। এর বিরুদ্ধে জোট বাঁধছেন তাঁরা। যোগাযোগ করছেন প্রাক্তন পড়ুয়া ও প্রাক্তন উপাচার্যদের সঙ্গে। সোমবার ছিল জাতীয় আইন দিবসে ছাত্র সংগঠনের দাবি, দেশের অন্যান্য আইন বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে এটিকেও আইআইটি, এনআইটি-র মতো জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে ঘোষণা করা হোক। দেশের ২২টি জাতীয় আইন বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ১৯টিতেই সংশ্লিষ্ট রাজ্যের পড়ুয়াদের জন্য ১০ থেকে ৫০% সংরক্ষণ রয়েছে। গাথা বলেন, ‘‘পশ্চিমবঙ্গে সংরক্ষণের ফলে মেধাবী পড়ুয়া আসা কমে যাবে। এখানে ভর্তির পরীক্ষা (ক্ল্যাট) অত্যন্ত উচ্চ মানের। রাজ্য সরকার অন্য পরীক্ষা নিতে চাইলে মানব না।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE