Advertisement
২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Saraswati Puja 2024

সরস্বতী পুজোর বাজারে আগুন দামে হাত পুড়ছে মধ্যবিত্তের

পুরোদস্তুর সরস্বতী পুজোর বাজার বসে গিয়েছে কাঁথি সুপার মার্কেট, চৌরঙ্গী মোড়, নিউ মার্কেট, রাজাবাজার -সহ নানা জায়গায়। ছাঁচে গড়া মূর্তি থেকে শুরু করে বড় প্রতিমার বিক্রি শুরু হয়েছে।

আস্তাড়ার পটুয়া পাড়ায় শেষবেলার প্রস্তুতি তুঙ্গে।

আস্তাড়ার পটুয়া পাড়ায় শেষবেলার প্রস্তুতি তুঙ্গে। ছবি : পার্থপ্রতিম দাস।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৯:২৫
Share: Save:

ফুল থেকে শুরু করে ফলমূল, আনাজ। দু’ দিন বাকি থাকতেই সরস্বতী পুজোর বাজারে দামের আগুনে হাত পুড়ছে মধ্যবিত্তের।

পুজোর আগের শেষ রবিবার অনেকেই বাজার শেষ করে রাখতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ফুল, ফল, আনাজ সব কিছু কিনতেই তাঁদের হাতে ছ্যাঁকা লেগেছে। টান পড়েছে পকেটে। কাঁথি থেকে দিঘা, হলদিয়া থেকে তমলুক, এগরা থেকে কোলাঘাট— জেলার সব শহরেই জিনিসের দাম গত বছরের তুলনায় এ বছর যথেষ্ট বেড়েছে।

এ দিন পুরোদস্তুর সরস্বতী পুজোর বাজার বসে গিয়েছে কাঁথি সুপার মার্কেট, চৌরঙ্গী মোড়, নিউ মার্কেট, রাজাবাজার -সহ নানা জায়গায়। ছাঁচে গড়া মূর্তি থেকে শুরু করে বড় প্রতিমার বিক্রি শুরু হয়েছে। দশকর্মা ভাণ্ডারে ছিল উপচে পড়া ভিড়। মৃৎশিল্পীদের বাড়ি থেকে বিভিন্ন বিদ্যালয়, কলেজ, নাচ-গান-আঁকার স্কুল, কোচিং সেন্টার ও ক্লাবগুলিতে প্রতিমা নিয়ে যাওয়া শুরু হয়েছে। এ দিকে সরস্বতী পুজোর আগে শশা, কুল, আপেল, মুসম্বি, নারকেল এবং পলাশ ও হলুদ গাঁদা ফুলের দাম গত বছরের তুলনায় অনেকটাই বেশি। সুপার মার্কেটে এ দিন বাজার করতে এসেছিলেন কুমারপুরের বাসিন্দা অনুকূল মাইতি। তিনি বলেন, ‘‘প্রতি বছর বাড়িতে বড় করে সরস্বতী পুজো করি। কিন্তু এ বছর প্রতিটি জিনিসের দাম বেড়েছে। দাম শুনে, আজ থেকে সামান্য কিছু ফল কিনেছি। কোনও রকমে পুজো সারতে হবে।’’ এ দিন চৌরঙ্গী মোড়ে সরস্বতী প্রতিমা বিক্রি করতে আসা বিধান কামিলার কথায়, “প্রতিমার দাম এ বছর কিছুটা বেড়েছে। মাটি, রং সবেরই দাম বেড়েছে। এ বার অনলাইনে টাকা দেওয়ার ব্যবস্থা রেখেছি দোকানে।” যদিও এক ক্রেতার কটাক্ষ, “প্রতিমার দাম এ বছর এত বেড়েছে যে পকেটে নিয়ে আসা টাকা দিয়ে কুলোনো যাচ্ছে না। তাই বিক্রেতারা অনলাইনে টাকা দেওয়ার ব্যবস্থা রেখেছেন।”

একটি পলাশ ফুলের ২০-২৫ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে। মাটির দোয়াত ও খাগের কলম বিক্রি হচ্ছে ২৫-৩৫ টাকায়। প্রতিমা ও ঘর সাজানোর উপকরণ কিনতেও অনেকের বাজেট পার হয়ে গিয়েছে। যতটা কিনবেন ভেবেছিলেন তা কিনতে পারেননি। রবিবার সকাল থেকেই কাথির সুপার মার্কেট, হলদিয়ার মাখন বাবুর বাজারে পুজোর কেনাকাটা করতে ভিড় উপচে পড়ে। পুজোর বাজার করতে ভিড় বাড়তে থাকায় যানজট শুরু হয়ে যায়।

কাঁথি বনমালী চট্টা হাই স্কুলের শিক্ষক তপন কুমার মান্না জানাচ্ছেন,"দিন দুয়েক আগেও বাঁধাকপি ১০ থেকে ২০ টাকা পিস হিসেবে বিক্রি হত। কিন্তু আজ ২০ টাকা কেজি দরেই কিনতে হচ্ছে। শসা ১০০ টাকা কেজি হিসেবে বিক্রি হচ্ছে।" বিক্রেতারা জানাচ্ছেন, আগামী বুধবার স্কুল এবং ক্লাবে ক্লাবে সরস্বতী পুজো। এই উপলক্ষে মায়ের কাছে অঞ্জলি দেওয়ার পর খিচুড়ি ভোগ আর বাঁধাকপির তরকারি খাওয়ানোর রীতি রয়েছে বিভিন্ন জায়গায়। শুধু তাই নয়, বহু স্কুলেই পড়ুয়াদের পিকনিক রয়েছে পুজো উপলক্ষে। তার জন্যই আনাজ এবং ফল দুটোর ই দাম ক্রমশ উর্ধ্বমুখী।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE