Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

TMC: মোজাহারুলকে নিয়ে ফের তোপ জাকিরের

পুরকর্তাদের বিরুদ্ধে বহু দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ ড্রপ বক্সে জমা পড়ায় অস্বস্তি বাড়ল তৃণমূলের।

১২ জানুয়ারি ২০২২ ০৯:৩৭
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

প্রার্থী হওয়ার আবেদন পত্রের সঙ্গে পুরকর্তাদের বিরুদ্ধে বহু দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ ড্রপ বক্সে জমা পড়ায় অস্বস্তি বাড়ল তৃণমূলের।

জঙ্গিপুর এবং ধুলিয়ান দু’টি পুরসভা মিলিয়ে প্রার্থী হওয়ার জন্য যে ৩২৪টি আবেদন পত্র জমা পড়েছে সেগুলি খাম ছিড়ে খুলতে গিয়েই পুর প্রশাসকদের বিরুদ্ধে বহু অভিযোগ পত্র সামনে এসেছে। তবে রাজ্য কমিটির কাছে প্রার্থীদের আবেদন পত্র পাঠানোর সঙ্গে সেই সব অভিযোগগুলিও পাঠানো হবে কি না, তা এখনও ঠিক হয়নি।

জেলা অফিসে জমা পড়া আবেদন পত্রের মধ্যে জঙ্গিপুরের পুর প্রশাসক মোজাহারুল ইসলাম ও তাঁর সহযোগীদের আবেদন পত্র থাকলেও জাকির হোসেন বা তার অনুগতদের বেশির ভাগেরই আবেদন পত্র জমা পড়েনি সেখানে।

Advertisement

দলের জঙ্গিপুরের জেলা সভাপতি খলিলুর রহমান বলেন, “ড্রপ বক্সের মাধ্যমে আবেদন পত্র জমা নেওয়ার সিদ্ধান্ত জেলা কমিটির নয়। রাজ্য কমিটির নির্দেশ মেনেই এটা করা হয়েছে। তালিকা তৈরি হচ্ছে। তাতে বহু অভিযোগ পত্রও রয়েছে। রাজ্য কমিটি ও দলের সহায়ক সংস্থা আই প্যাকের কাছে সে তালিকা পাঠানো হচ্ছে। তারা পরবর্তীতে যে নির্দেশ দেবেন সেটাই করা হবে।”

তবে এ দিন বিধায়ক জাকির হোসেন সাংবাদিকদের কাছে স্পষ্ট জানিয়ে দেন, জঙ্গিপুরের পুর প্রশাসক তথা বিদায়ী পুরপ্রধান মোজাহারুল ইসলামকে কোনও মতেই এবারে পুর নির্বাচনে মনোনয়ন দেওয়া হবে না। জাকিরের কথায়, “জঙ্গিপুরের চেয়ারম্যানকে কেউ চাইছেন না। তাই চেয়ারম্যানকে দলের টিকিট দিতে পারব না। কারণ উনি তৃণমূলের হয়ে কোনও কাজ করেননি।”

জাকির বলেন, “ড্রপ বক্স বসিয়ে আবেদন পত্র নেওয়ার ব্যাপারে আমার সঙ্গে দলের কোনও নেতা কোনও আলোচনা করেননি। এ ভাবে কোনও দিন প্রার্থী নির্বাচন হয় না। বিধায়ক হিসেবে আমি দায়িত্ব নিয়ে বলতে পারি যাঁরা দল করেন, দলের সঙ্গে ছিলেন তাঁরাই দলের মনোনয়ন পাবেন। দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁদের পছন্দ করেন যাঁরা তৃণমূল করেন। আমরা পুর নির্বাচনের একটি প্রার্থী তালিকা দলের কাছে এবং দলের হয়ে যে সংস্থা কাজ করে তাদের কাছে ইতিমধ্যেই জমা দিয়েছি।”

তিনি জানান, বেশ কিছু কাউন্সিলারকে এ বারে দলের মনোনয়ন দিতে পারবেন না। কারণ তাঁরা দুর্নীতিতে জড়িত। জাকির বলেন, “আমি আমার তরফ থেকে প্রার্থী তালিকা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও মুখ্যমন্ত্রীর হাতে দিয়ে আসব”

জাকিরের প্রকাশ্য তোপে পরিষ্কার, জঙ্গিপুরে দলের গোষ্ঠী বিবাদ আদৌ মেটেনি। মোজাহারুল এ দিন বলেন, “পুরসভায় দলের প্রার্থী ঠিক করবেন রাজ্য নেতারা। কাজেই কারা কোথায় প্রার্থী হবেন সেটা জাকির হোসেন নয় , ঠিক করবেন রাজ্যের নেতারা। কাজেই জাকিরের বক্তব্যের কোনও গুরুত্ব দিচ্ছি না।”



Tags:

আরও পড়ুন

Advertisement