Advertisement
২১ জুলাই ২০২৪
Dengue

শীতকালেও হানা ডেঙ্গির

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গিয়েছে, ডিসেম্বর মাসের তৃতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত জেলায় ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় একশো।

ডেঙ্গির হানা নওদায়।

ডেঙ্গির হানা নওদায়। — ফাইল চিত্র।

মফিদুল ইসলাম
নওদা শেষ আপডেট: ২২ ডিসেম্বর ২০২২ ০৯:০০
Share: Save:

শীত পড়ায় মুর্শিদাবাদ জেলায় ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে। চলতি মাসে বিভিন্ন ব্লকে ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা হাতে গোনা। তবে জেলার বিভিন্ন জায়গায় মশার উপদ্রব অব্যাহত। নালা-নর্দমায় জল শুকিয়ে যাওয়ার মতো হলেও কোথাও কোথাও মিলছে মশার লার্ভাও। এ নিয়ে বাড়তি সতর্ক প্রশাসনও।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গিয়েছে, ডিসেম্বর মাসের তৃতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত জেলায় ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় একশো। তবে স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকদের একাংশের দাবি, আক্রান্তদের অধিকাংশই ভিন রাজ্য থেকে গ্রামে ফিরেছেন। গত জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত জেলায় আট হাজার জন ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হয়েছেন। নভেম্বর মাসে ২,৫০০ জন আক্রান্ত হন। চলতি মাসে তা কমে হয়েছে ৩১৪ জন।

সম্প্রতি নওদার রায়পুর, নওদা, পাটিকাবাড়ি পঞ্চায়েত এলাকায় একাধিক ব্যক্তির দেহে ডেঙ্গির জীবাণু মিলেছে। ওই এলাকায় মশার লার্ভা রয়েছে কি না, ডেঙ্গির বাহক এডিস ইজিপ্টাই মশা আছে কি না, তা খতিয়ে দেখতে সম্প্রতি সেখানে যান জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের পতঙ্গবিদরা। বাসিন্দাদের সচেতন করেন তাঁরা। পতঙ্গবিদদের মতে, ১৫ ডিগ্রি সেলিসিয়াস তাপমাত্রার নীচে মশার লার্ভা বেঁচে থাকতে পারে না। তবে ডিসেম্বর মাস পার হতে চললেও এখনও জাঁকিয়ে শীত পড়েনি এ বছর। দুপুরে ২৩-২৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা থাকছে। সেই কারণেই এখনও মশার উপদ্রব অব্যাহত বলে মত বিশেষজ্ঞদের। পতঙ্গবিদ সাগ্নিক চক্রবর্তী বলেন, ‘‘শীত পড়তেই জেলায় ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে। তবে দিনেরবেলা তাপমাত্রা বাড়ছে, যা পূর্ণবয়স্ক মশার বেঁচে থাকার পক্ষে অনুকূল আবহাওয়া। সকাল, সন্ধ্যায় বাইরে তাপমাত্রা কম থাকায় মশা ঘরের মধ্যে, পর্দার আড়ালে আশ্রয় নেয়। তাই মশার উপদ্রব লক্ষ্য করা যাচ্ছে।’’ নওদার ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক সফিকুল হাসান বলেন, ‘‘মাঝেমধ্যে দু’-এক জনের দেহে ডেঙ্গির জীবাণু মিলছে। আমরা মশার লার্ভানাশক স্প্রে করছি। মশারি টাঙিয়ে ঘুমোনো, বাড়ির চারপাশ পরিষ্কার রাখার পরামর্শ দিচ্ছি।’’ জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক সন্দীপ সান্যাল বলেন, ‘‘ডেঙ্গির বাড়বাড়ন্ত একেবারেই নেই। বিক্ষিপ্ত ভাবে মাঝেমধ্যে বিভিন্ন ব্লকে দু’এক জনের শরীরে ডেঙ্গির জীবাণু মিলছে। আমরা মানুষকে সচেতন করছি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Dengue Nowda Dengue Fear
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE