Advertisement
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

দায়িত্ব নিতে পারলেন না নয়া সুপার

গত ২ এপ্রিল স্বাস্থ্য দফতরের নির্দেশে সুপারের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় মৈত্রেয়ী দেবীকে। পরের দিন থেকে তিনি ছুটি নিয়ে ট্রেনিংয়ে যান। কর্তৃপক্ষ জানান, ৬ এপ্রিল তাঁর ফেরার কথা ছিল।

নিজস্ব সংবাদদাতা
শিলিগুড়ি শেষ আপডেট: ০৮ এপ্রিল ২০১৮ ০২:০১
Share: Save:

মৈত্রেয়ী কর ছুটি থেকে ফিরে কাজে যোগ না-দেওয়ায় শনিবার উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে সুপারের পদে দায়িত্ব গ্রহণ করতে পারলেন না কৌশিক সমাজদার। গত ২ এপ্রিল স্বাস্থ্য দফতরের নির্দেশে সুপারের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় মৈত্রেয়ী দেবীকে। পরের দিন থেকে তিনি ছুটি নিয়ে ট্রেনিংয়ে যান। কর্তৃপক্ষ জানান, ৬ এপ্রিল তাঁর ফেরার কথা ছিল। শনিবার তাঁর কাজে যোগ দেওয়ার কথা। সেই মতো এ দিন নতুন সুপার কৌশিকবাবু দায়িত্ব গ্রহণ করবেন ঠিক ছিল। তিনি গিয়েও ছিলেন। কিন্তু মৈত্রেয়ীদেবী না আসায় তিনি দায়িত্ব গ্রহণ করতে পারেননি।

Advertisement

মৈত্রেয়ীদেবী কবে আসবেন বা কবে নতুন সুপার দায়িত্ব নিতে পারবেন তা স্পষ্ট করে জানাতে পারছেন না অধ্যক্ষ সমীর ঘোষ রায়ও। মৈত্রেয়ীদেবী ছুটিতে যাওয়ার সময় থেকে ভারপ্রাপ্ত সুপার হিসাবে কাজ করছেন মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রধান অরুণাভ সরকার। তিনি জানিয়েছেন, মৈত্রেয়ীদেবী যাওয়ার আগে তাঁকে দায়িত্ব দেওয়ায় তিনিই ভারপ্রাপ্ত সুপার হিসাবে কাজ করছেন। তবে এ দিন অধ্যক্ষের মোবাইলে এসএমএস করে মৈত্রেয়ীদেবী জানিয়েছেন তিনি লখনউতে অ্যাডভান্স ট্রেনিং করতে ছুটিতে ছিলেন। ট্রেনিং শেষে অসুস্থ পড়ায় এখনই যোগ দিতে পারছেন না।

এ দিন কৌশিকবাবু দায়িত্ব নেবেন বলে প্রস্তুতিও নেওয়া হয়েছিল। সেই মতো হাসপাতালের অ্যাকাউন্টস বিভাগ, এস্টাবলিশমেন্ট বিভাগ, ও স্টোরের আধিকারিক কর্মীদের থাকতে বলা হয়। তবে মৈত্রেয়ীদেবী না আসায় তাঁদের চলে যেতে হয়েছে।

সম্প্রতি মেডিক্যাল কাউন্সিল অব ইন্ডিয়ার (এমসিআই) প্রতিনিধি দল পরিদর্শনে এসে প্রশাসনিক কাজে মৈত্রেয়ীদেবীর ১০ বছরের অভিজ্ঞতা না থাকা নিয়ে প্রশ্ন তোলে। দিন কয়েক আগে ১৫০ আসনে ভর্তির অনুমোদন খারিজ করার ক্ষেত্রে তারা যে ১৯ টি ঘাটতির কথা জানিয়েছিল তার এক নম্বরে মৈত্রেয়ীদেবীর বিষয়টি রয়েছে। তারপরেই পদ থেকে তাঁকে সরিয়ে দেওয়ার কথা জানায় স্বাস্থ্য দফতর।

Advertisement

মৈত্রেয়ীদেবীকে সুপারের পদ থেকে সরানো হয়েছে, পাশাপাশি তাঁকে মালদহ মেডিক্যালে বদলি করা হয়েছে। ঘনিষ্ঠ মহলে তিনি জানিয়েছেন পরিবারের কথা ভেবে মালদহে মেডিক্যালে যেতে চাইছেন না। সে জন্য তিনি আইনের দ্বারস্থও হতে পারেন। সে ক্ষেত্রে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল থেকে ‘রিলিজ অর্ডার’ নিলে তাঁকে মালদহ মেডিক্যালে এখনই যোগ দিতে হবে। এ দিকে মৈত্রেয়ীদেবী দায়িত্ব হস্তান্তর না করলে নতুন সুপারের দায়িত্ব নিতে দেরি হবে। ফলে হাসপাতালের প্রশাসনিক কাজেও সমস্যা হবে। কারণ ভারপ্রাপ্ত সুপারের হাতে আর্থিক অনুমোদনের তেমন কোনও ক্ষমতা থাকে না। হাসপাতালের ওষুধ, অক্সিজেন কেনা থেকে অন্য কোনও খরচের বিষয় অনুমোদন না হলে অনেক ক্ষেত্রে সমস্যা হবে। সে ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যভবন থেকে পদক্ষেপ করা হতে পারে বলে কর্তৃপক্ষের একাংশ মনে করছেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.