×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২১ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

একশো দিনের সব তথ্য এ বার মিলবে গুগলে

সুশান্ত সরকার
মগরা ১৮ ডিসেম্বর ২০১৯ ০২:২০
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

একশো দিনের কাজে এলাকায় কী কাজ হচ্ছে তা গুগল খুললেই দেখতে পাবেন গ্রামবাসী। আগামী অর্থবর্ষ থেকেই এই ব্যবস্থা কার্যকর করতে চায় কেন্দ্রীয় সরকার। সেই কারণে পঞ্চায়েত স্তরে প্রশিক্ষণ দেওয়া শুরু হয়েছে, তারা যাতে ওই প্রকল্পের কাজের যাবতীয় তথ্য গুগল ম্যাপে তুলে দেন।

মঙ্গলবার হুগলির চুঁচুড়া-মগরা ব্লকের বিভিন্ন পঞ্চায়েতের জন প্রতিনিধি এবং সরকারি আধিকারিকদের ওই প্রশিক্ষণ দেওয়া হল জেলা প্রশাসনের তরফে। জেলাশাসক ওয়াই রত্নাকর রাও বলেন, ‘‘গুগলে যাতে ওই প্রকল্পের সব কাজের তথ্য আপলোড করা হয়, তার জন্য পঞ্চায়েত স্তরে প্রশিক্ষণের জন্য ব্লককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সাধারণ মানুষ যাতে প্রকল্পের বিষয়ে জানতে পারেন, সে জন্য এই ব্যবস্থা। জিপিআরএস ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে কাজ হবে।’’ প্রশাসনের আধিকারিকরা জানান, বিভিন্ন জেলার ব্লকে পঞ্চায়েত স্তরে প্রশিক্ষণ দেওয়ার কাজ চলছে।

মঙ্গলবার দুপুরে চুঁচুড়া-মগরা ব্লক অফিসের সভাকক্ষে এ ব্যপারে প্রশিক্ষণ শিবির হয়। প্রশাসন সূত্রের খবর, সেখানে উপস্থিত ওই ব্লকের দশটি পঞ্চায়েতের প্রধান, উপপ্রধান এবং আধিকারিকদের বলা হয়, নির্দিষ্ট কাজের জমির পরচা, দাগ নম্বর থেকে মোট খরচ, কত জন শ্রমিক নিযুক্ত করা হচ্ছে এবং কত দিনের মধ্যে ওই কাজ করা হবে, সব তথ্য গুগলে জমা করতে হবে। প্রশাসনের এক আধিকারিক বলেন, ‘‘ধরা যাক, একটি পুকুর কাটানো হবে। সে ক্ষেত্রে ওই জমির অবস্থান, কত টাকার কাজ, শ্রমিক সংখ্যা, কাজের নির্ধারিত দিনসংখ্যা— সব তথ্য আগেভাগে গুগলে দিতে হবে। যে কেউ সেই তথ্য দেখতে পাবেন। এতে কাজে স্বচ্ছতা থাকবে।’’

Advertisement

মগরা ১ পঞ্চায়েতের উপপ্রধান রঘুনাথ ভৌমিক বলেন, ‘‘নতুন ব্যবস্থা কার্যকর হলে ভালই হবে। মানুষ সবটা জানতে পারবেন।’’ অন্য এক পঞ্চায়েত প্রধান বলেন, ‘‘অনেক ক্ষেত্রে দুর্নীতি নিয়ে গ্রামে কানাঘুসো চলে। সবাই সবটা জানতে পারলে, তা হয়তো আর হবে না। কাজে স্বচ্ছতা থাকবে।’’

Advertisement