জীবনে বেশ কিছু বিষয়ে গোপনীয়তা বজায় রাখতেই পছন্দ করি আমরা। কিছু ক্ষেত্রে তা ইচ্ছাকৃত, কিছু আবার অস্বস্তি এড়াতে। সাধারণত, দীর্ঘ চেনাজানার কিছু মানুষজনের কাছে আমরা খুব সাবলীল হতে পারলেও কখনও কখনও সেখানে নানা সাধারণ কথা জানাতেও অস্বস্তি হয়। বিয়ের পর কমবেশি সব মেয়েই এমন কিছু পরিস্থিতির শিকার হন বইকি।

নিজের পছন্দ করা মানুষের সঙ্গে বিয়ে হোক বা পরিবারের বেছে দেওয়া মানুষ— বিয়ের পর অন্য পরিবেশ ও চার পাশের মানুষরা হঠাৎই বদলে যাওয়ায় সাধারণত মেয়েরা দিনকয়েক গুটিয়েই থাকেন। এই সময় বেশ কিছু বিষয় গোপন করে যাওয়ার প্রবৃত্তি তাঁদের মধ্যে তৈরি হয়। বিশেষত, পারিবারিক দেখাশোনায় বিয়ে হলে এই অস্বস্তি অনেক বেশি করে আসে।  কোনও কোনও পরিস্থিতিতে এই সব কথা জানানোর মতো মানসিক অবস্থা পান না অনেক মেয়েই।

‘‘আমাদের দেশে এমন অনেক কথাই মেয়েদের মনে থাকে, যা তারা সত্যিই জানিয়ে উঠতে পারেন না তাঁর সবচেয়ে কাছের মানুষটাকেও। অনেকটা ভয় থেকে, কখনও আবার অনিশ্চয়তা থেকেই। এই কারণে নানা জটিলতাও তৈরি হয়। তবু মেয়েদের সেই পরিসর দিতে আমাদের সমাজ এখনও অপারগ।’’ জানালেন, মনোবিদ অমিতাভ মুখোপাধ্যায়। কোন কোন কথা অধিকাংশ মেয়েরা বিয়ের পর সে ভাবে বলে উঠতে পারেন না, জানেন?

আরও পড়ুন: আপনার পার্টনার ঠকাচ্ছেন না তো? এ ভাবেই বুঝে যান

  • প্রেমের বিয়ে হলে অনেক সময়ই একে অন্যের অতীতের ব্যর্থ প্রেমের কথা জানেন। কিন্তু দেখাশোনার বিয়েতে সেই পরিসর আসতে অনেকটা সময় নেয়। আজকাল যদিও দেখাশোনার পর অনেকেই সময় নেন মেলামেশার, তবু মনোবিদদের সমীক্ষা অনুসারে,সে সব ক্ষেত্রেও নিজেদের অতীত প্রেম সম্পর্কে সবটুকু উজাড় করে বলার মতো সাহস বা সুযোগ মেয়েরা সব সময় পান না। তাই অতীতের প্রেম নিয়ে সব কথা বলে দিতে পারা মেয়ের সংখ্যা কম।
  • নতুন বিয়ের পর অনেক মেয়েকেই শ্বশুরবাড়িতে নানা অপ্রীতিকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়। কোনও আত্মীয়ের ব্যবহার বা কথায় আঘাত পেতে পারেন তাঁরা। সে সবও প্রথম দিকে স্বামীর কাছ থেকেও গোপন করেন বেশির ভাগ মেয়ে।

আরও পড়ুন: শাশুড়ির সঙ্গে মনোমালিন্য, রোজ অশান্তি? রইল সমাধান

‘হাতের উপর হাত রাখা খুব সহজ নয়’। প্রতীকী ছবি। শাটারস্টক।

  • শারীরিক নানা সমস্যা অনেকেরই থাকে। তবু বিয়ের পর তা নিয়েও খুব একটা সহজ হতে পারেন না অনেক মেয়ে। বরং এ নিয়ে তাঁরা হীনম্মন্যতাতেও ভোগেন।
  • বাপের বাড়ির কোনও গুরুতর সমস্যা বা আর্থিক টানাপড়েনের খবর কানে এলেও মেয়েরা বিয়ের পর পরই তা খুব একটা জানাতে চান না শ্বশুরবাড়িতে। এমনকি, বিয়ের অনেক পরেও এ সব বিষয়ে খুব ঘনিষ্ঠ আত্মীয় ছাড়া আর কারও সঙ্গেই মেয়েরা খুব একটা সহজ হন না।
  • যৌন জীবনের ক্ষেত্রেও নিজের পছন্দ-অপছন্দ, চাহিদা বা সমস্যার কথা অনেক মেয়েই বলে উঠতে পারেন না। সম্পর্ক সহজ হওয়ার সঙ্গে কেউ কেউ এ সব নিয়ে সহজ হতে পারলেও এ দেশে অনেক মেয়েই এখনও এই বিষয়ে গোপন রাখেন নিজস্ব মতামত।

ইতিহাসের পাতায় আজকের তারিখ, দেখতে ক্লিক করুন — ফিরে দেখা এই দিন