Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৯ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

জ্বলছে ‘স্বর্গ’, ক্যালিফর্নিয়ার দাবানলে মৃত ৫, ঘরছাড়া বহু

গত কাল দুপুরের মধ্যেই পুড়ে ছাই অন্তত ১৮ হাজার একর। মিনিটে অন্তত ৮০টি ফুটবল মাঠের সমান এলাকায় ছড়িয়ে প়ড়েছে দাবানল, জানাচ্ছেন আতঙ্কিত দমকল

সংবাদ সংস্থা
সান ফ্রান্সিসকো ১০ নভেম্বর ২০১৮ ০৩:১৯
Save
Something isn't right! Please refresh.
দাউদাউ: বাড়ি পুড়ছে ক্যালিফর্নিয়ার থাউজ্যান্ড ওক্‌সে। আগুন বাগে আনার চেষ্টা দমকল কর্মীর। রয়টার্স

দাউদাউ: বাড়ি পুড়ছে ক্যালিফর্নিয়ার থাউজ্যান্ড ওক্‌সে। আগুন বাগে আনার চেষ্টা দমকল কর্মীর। রয়টার্স

Popup Close

জ্বলছে ছবির মতো সাজানো একের পর এক শহর। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ছ’টা হবে। আচমকাই দাবানল ছড়িয়ে পড়ে নর্দার্ন ক্যালিফর্নিয়ার স্যাক্রামেন্টোয় বিউট কাউন্টিতে। ঝোড়ো হাওয়া আর শুকনো পাতায় ভয়াবহ আকার নেয় আগুন। দাবানলে অন্তত পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। ঘর ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন দেড় লক্ষেরও বেশি মানুষ।

গত কাল দুপুরের মধ্যেই পুড়ে ছাই অন্তত ১৮ হাজার একর। মিনিটে অন্তত ৮০টি ফুটবল মাঠের সমান এলাকায় ছড়িয়ে প়ড়েছে দাবানল, জানাচ্ছেন আতঙ্কিত দমকল কর্তারাই। অন্তত ৭৫ হাজার বাড়ি খালি করে বাসিন্দাদের দ্রুত সরানো হচ্ছে। তাতেও কত মানুষ যে জখম, তার কোনও হিসেব নেই প্রশাসনের কাছে। জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে নর্দার্ন ক্যালিফর্নিয়ায়।

সব চেয়ে খারাপ অবস্থা ‘প্যারাডাইস’ শহরের। সেই ‘ভূস্বর্গ’ এখন চেনা দায়। পুড়ে খাক গাছপালা। পোড়া বাড়িঘর, গাড়িতে সে যেন এক ভুতুড়ে শহর। প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, পুলগা থেকে কনকাউ, দক্ষিণে প্যারাডাইস সম্পূর্ণ আগুনের গ্রাসে। গত কাল বাসিন্দাদের ঘুম ভেঙেছিল পোড়া গন্ধে। ধোঁয়ায় শ্বাসরোধ হয়ে আসার মতো অবস্থা। দূরের আকাশে ধূসর-কমলা আভা দেখে কারও বুঝতে দেরি হয়নি, দাবানল লেগেছে।

Advertisement

ধোঁয়ার জন্য উদ্ধারকাজেও সমস্যা হচ্ছে। প্যারাডাইসের বাসিন্দা টেনা ক্লুনিস-রস জানালেন, সকাল আটটা নাগাদ বাড়ির দরজার সামনে রাখা নিজের গাড়িটাও দেখতে পাচ্ছিলেন না তিনি। এ দিকে, আগুনের হলকা লাগছিল গায়ে। বুঝতে পেরেছিলেন, বাড়ির বাগানে ঢুকে পড়েছে আগুন। মৃত্যু নিশ্চিত ধরেই নিয়েছিলেন টেনা। বললেন, ‘‘বাঁচতামও না। যদি না এক দমকল কর্মী উদ্ধার করতেন।’’

সকালে প্যারাডাইসের একটি জ্বালানি ট্যাঙ্কে বিস্ফোরণ ঘটে। মর্গান ম্যাসন নামে এক তরুণী সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছেন সে কথা। তাঁর বাবা ওই সংস্থার কর্মী। তড়িঘড়ি ডেকে পাঠানো হয়েছে তাঁকে। আতঙ্কিত তরুণী লিখেছেন, ‘‘পরিস্থিতি একটুও ভাল ঠেকছে না। সবাই দয়া করে প্রার্থনা করুন।’’ সিন্ডার্স নামে আর এক বাসিন্দা জানালেন, প্রায় হামাগুড়ি দিয়ে বেরিয়ে এসেছেন বাড়ি থেকে। ধোঁয়ায় কিছু দেখা যাচ্ছিল না। গাড়ি করে শহর ছেড়ে পালানোটাও বেশ কঠিন ছিল তাঁর পক্ষে। বললেন, ‘‘দিনেই যেন রাতের অন্ধকার। বাড়িটা এত ক্ষণে পুড়ে শেষ। আমি নিশ্চিত।’’

ফাঁকা করা হয়েছে হাসপাতালগুলো। প্যারাডাইসের ১১টি আবাসিক স্কুলের সাড়ে তিন হাজার পড়ুয়াকে দ্রুত স্কুল বাসে করে অন্যত্র সরানো হয়েছে। চাকরি থেকে অবসরের পরে মার্কিন মুলুকের অনেকেই আস্তানা গাড়েন প্যারাডাইসে। এমন প্রায় ২৭ হাজার প্রবীণকে উদ্ধার করেছে দমকল। কিন্তু এত তৎপরতা সত্ত্বেও মৃত্যু আটকানো যায়নি। শুক্রবার রাত পর্যন্ত পাঁচ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement