Advertisement
০২ ডিসেম্বর ২০২২
International news

মিস ইউনিভার্স অস্ট্রেলিয়া হলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত এই তরুণী। চেনেন এঁকে?

সম্প্রতি ‘মিস ইউনিভার্স অস্ট্রেলিয়া’ হলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত তরুণী মারিয়া থাটিল।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০৭ নভেম্বর ২০২০ ১৪:১৫
Share: Save:
০১ ১১
ভারতীয় বংশোদ্ভূত তরুণীর মাথায় উঠল অস্ট্রেলিয়ার তাজ। সম্প্রতি ‘মিস ইউনিভার্স অস্ট্রেলিয়া’ হলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত তরুণী মারিয়া থাটিল।

ভারতীয় বংশোদ্ভূত তরুণীর মাথায় উঠল অস্ট্রেলিয়ার তাজ। সম্প্রতি ‘মিস ইউনিভার্স অস্ট্রেলিয়া’ হলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত তরুণী মারিয়া থাটিল।

০২ ১১
গত ২৮ অক্টোবর মেলবোর্নের পাঁচতারা হোটেল সোফিটেল মেলবোর্ন অন কলিন্‌সে এই প্রথম ভার্চুয়ালি মিস ইউনিভার্স অস্ট্রেলিয়া প্রতিযোগিতা হয়। অতিমারির কারণেই এই ব্যবস্থা।

গত ২৮ অক্টোবর মেলবোর্নের পাঁচতারা হোটেল সোফিটেল মেলবোর্ন অন কলিন্‌সে এই প্রথম ভার্চুয়ালি মিস ইউনিভার্স অস্ট্রেলিয়া প্রতিযোগিতা হয়। অতিমারির কারণেই এই ব্যবস্থা।

০৩ ১১
মোট ২৬ জন প্রতিযোগী অংশ নিয়েছিলেন ওই প্রতিযোগিতায়। তাঁদের মধ্যে মিউ ইউনিভার্স অস্ট্রেলিয়ার মুকুট ছিনিয়ে নেন মারিয়া।

মোট ২৬ জন প্রতিযোগী অংশ নিয়েছিলেন ওই প্রতিযোগিতায়। তাঁদের মধ্যে মিউ ইউনিভার্স অস্ট্রেলিয়ার মুকুট ছিনিয়ে নেন মারিয়া।

০৪ ১১
ভার্চুয়াল ইভেন্টের শেষে মারিয়াকে মুকুট পরিয়ে দেন ২০১৯ সালের ‘মিস ইউনিভার্স অস্ট্রেলিয়া’ প্রিয়া সেরাও। ঘটনাচক্রে, প্রাক্তন ওই মিস ইউনিভার্স অস্ট্রেলিয়াও ভারতীয় বংশোদ্ভূত।

ভার্চুয়াল ইভেন্টের শেষে মারিয়াকে মুকুট পরিয়ে দেন ২০১৯ সালের ‘মিস ইউনিভার্স অস্ট্রেলিয়া’ প্রিয়া সেরাও। ঘটনাচক্রে, প্রাক্তন ওই মিস ইউনিভার্স অস্ট্রেলিয়াও ভারতীয় বংশোদ্ভূত।

০৫ ১১
কে মারিয়া থাটিল? ২৭ বছরের মারিয়া একজন মেক-আপ শিল্পী। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে তিনি মেক-আপ সম্পর্কে নানা তথ্য শেয়ার করেন। তাঁর একটি ইউটিউব চ্যানেলও আছে। তাতে লাইফস্টাইল এবং মেক-আপের নানা ভিডিয়ো শেয়ার করেন তিনি।

কে মারিয়া থাটিল? ২৭ বছরের মারিয়া একজন মেক-আপ শিল্পী। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে তিনি মেক-আপ সম্পর্কে নানা তথ্য শেয়ার করেন। তাঁর একটি ইউটিউব চ্যানেলও আছে। তাতে লাইফস্টাইল এবং মেক-আপের নানা ভিডিয়ো শেয়ার করেন তিনি।

০৬ ১১
মেলবোর্নেই জন্ম এবং বড় হওয়া মারিয়ার। ন’য়ের দশকে তাঁর মা-বাবা ভারত ছেড়ে মেলবোর্নে চলে যান। তারপর থেকে সেখানেই থাকতে শুরু করেন তাঁরা।

মেলবোর্নেই জন্ম এবং বড় হওয়া মারিয়ার। ন’য়ের দশকে তাঁর মা-বাবা ভারত ছেড়ে মেলবোর্নে চলে যান। তারপর থেকে সেখানেই থাকতে শুরু করেন তাঁরা।

০৭ ১১
মারিয়ার বাবার জন্ম কেরলে। মায়ের কলকাতায়। কেরলে এখনও তাঁর বাবার তরফে অনেক আত্মীয়স্বজন থাকেন। কিন্তু মায়ের তরফে প্রায় কেউই আর ভারতে নেই। কর্মসূত্রে সকলেই এখন অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন শহরে থাকেন।

মারিয়ার বাবার জন্ম কেরলে। মায়ের কলকাতায়। কেরলে এখনও তাঁর বাবার তরফে অনেক আত্মীয়স্বজন থাকেন। কিন্তু মায়ের তরফে প্রায় কেউই আর ভারতে নেই। কর্মসূত্রে সকলেই এখন অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন শহরে থাকেন।

০৮ ১১
সে কারণে ২০০১ সালে একবার বাবার সঙ্গে কেরলে গেলেও কলকাতায় কখনও আসা হয়নি তাঁর।

সে কারণে ২০০১ সালে একবার বাবার সঙ্গে কেরলে গেলেও কলকাতায় কখনও আসা হয়নি তাঁর।

০৯ ১১
ভারত এবং অস্ট্রেলিয়া দুই সংস্কৃতিতেই বড় হয়েছেন মারিয়া। বাড়িতে মা-বাবার থেকে ভারতীয় সংস্কৃতি শিখেছেন। স্কুল-কলেজ এবং বন্ধুদের থেকে শিখে নিয়েছেন সে দেশের সংস্কৃতিও।

ভারত এবং অস্ট্রেলিয়া দুই সংস্কৃতিতেই বড় হয়েছেন মারিয়া। বাড়িতে মা-বাবার থেকে ভারতীয় সংস্কৃতি শিখেছেন। স্কুল-কলেজ এবং বন্ধুদের থেকে শিখে নিয়েছেন সে দেশের সংস্কৃতিও।

১০ ১১
এই দুই সংস্কৃতিকে বয়ে নিয়ে যেতে প্রথম প্রথম একটু অসুবিধাই হত মারিয়ার। ছোটবেলায় অনেক চেষ্টাও করেছেন শুধুমাত্র অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক হিসাবেই নিজের পরিচিতি গড়ে তুলতে। কিন্তু সেটা সম্ভব হয়নি।

এই দুই সংস্কৃতিকে বয়ে নিয়ে যেতে প্রথম প্রথম একটু অসুবিধাই হত মারিয়ার। ছোটবেলায় অনেক চেষ্টাও করেছেন শুধুমাত্র অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক হিসাবেই নিজের পরিচিতি গড়ে তুলতে। কিন্তু সেটা সম্ভব হয়নি।

১১ ১১
বড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মারিয়ার উপলব্ধি, তাঁর মধ্যে দুই দেশের সংস্কৃতিই মিশে আছে। আর সেটাই তাঁর পরিচয়। এই পরিচয়েই এখন গর্বিত মারিয়া।

বড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মারিয়ার উপলব্ধি, তাঁর মধ্যে দুই দেশের সংস্কৃতিই মিশে আছে। আর সেটাই তাঁর পরিচয়। এই পরিচয়েই এখন গর্বিত মারিয়া।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
আরও গ্যালারি

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.