Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

Hindu Nationalism: হিন্দুত্ব নিয়ে আলোচনা রুখতে হুমকি

পরিবারের ক্ষতি করার হুমকির পাশাপাশি রয়েছে নারীবিদ্বেষী ও জাতিবিদ্বেষী দেদার আক্রমণ। রয়েছে খুন ও যৌন নৃশংসতার হুমকিও।

সংবাদ সংস্থা
নিউ ইয়র্ক ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৭:৪৮
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

৫৩টি বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে আমেরিকায় হিন্দু জাতীয়তাবাদ সংক্রান্ত একটি আলোচনাচক্রের সূচনা হওয়ার কথা আগামিকাল। কিন্তু তার আগে ই-মেলে বিদ্বেষমূলক মন্তব্য থেকে শুরু করে সরাসরি খুনের হুমকিও পেয়েছেন একাধিক বক্তা। ফলে অনেকেই ওই আলোচনাচক্র থেকে নিজেদের সরিয়ে নিতে বাধ্য হয়েছেন। ভারত ও আমেরিকার চরমপন্থী হিন্দুত্ববাদী গোষ্ঠীগুলি এর নেপথ্যে রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

‘ডিসম্যান্টলিং গ্লোবাল হিন্দুত্ব’ শীর্ষক ওই আলোচনাচক্রের আয়োজক হার্ভার্ড, স্ট্যানফোর্ড, প্রিন্সটন, কলম্বিয়া, বার্কলে, শিকাগো, পেনসিলভেনিয়া, রাটগার্সের মতো বিশ্ববিদ্যালয়গুলি। আয়োজকদের অভিযোগ, অনুষ্ঠানটিকে ‘হিন্দু-বিরোধী’ বলে দাগিয়ে দিয়ে সেটি বাতিলের জন্য তাঁদের উপরে অপরিসীম চাপ তৈরি করা হয়েছে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট-সহ কর্তাদের কাছে দশ লক্ষের বেশি ই-মেল পাঠানো হয়েছে। তার মধ্যে নিউ জার্সির একটি বিশ্ববিদ্যালয় কয়েক মিনিটে পেয়েছে ৩০ হাজার ই-মেল।

অন্যতম বক্তা মীনা কান্দাসামিকে তাঁর ছেলের ছবি-সহ হুমকি দেওয়া হয়েছে, ‘‘আপনার ছেলের যন্ত্রণাদায়ক মৃত্যু হবে।’’ পরিবারের ক্ষতি করার হুমকির পাশাপাশি রয়েছে নারীবিদ্বেষী ও জাতিবিদ্বেষী দেদার আক্রমণ। রয়েছে খুন ও যৌন নৃশংসতার হুমকিও। ভাষাও ততোধিক কুৎসিত। এই অবস্থায় ভারতে ফিরলেই তাঁদের গ্রেফতার করা হতে পারে বলে ভয় পাচ্ছেন অনেক বক্তা। বিবৃতিতে উদ্যোক্তারা বলেছেন, ‘‘আমদের আশঙ্কা, এই সমস্ত মিথ্যাকে কাজে লাগিয়ে বক্তাদের আটক করা হতে পারে। তাঁদের শারীরিক ক্ষতি এমনকি খুনও করা হতে পারে। এই কারণে গত দু’তিন দিনে বেশ কয়েক জন এর থেকে নিজেদের সরিয়ে নিয়েছেন।’’

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement