Advertisement
১৯ জুন ২০২৪
Bangladesh News

শিশুপুষ্টি খাতে বাংলাদেশকে একশো কোটি ডলার বেশি ঋণ দেবে বিশ্বব্যাঙ্ক

তিন দিনের সফরে রবিবার ঢাকায় আসেন বিশ্বব্যাঙ্কের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম। দারিদ্র দূরীকরণে বাংলাদেশের সাফল‌্য দেখতে আসা কিম জানান, বাংলাদেশকে আগামী দু’বছরে শিশুপুষ্টি খাতে বর্তমানের চেয়েও ১০০ কোটি ডলার বেশি ঋণ দেবে বিশ্বব্যাঙ্ক।

বিশ্বব্যাঙ্কের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম।

বিশ্বব্যাঙ্কের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম।

নিজস্ব সংবাদদাতা
ঢাকা শেষ আপডেট: ১৭ অক্টোবর ২০১৬ ১৩:২২
Share: Save:

তিন দিনের সফরে রবিবার ঢাকায় আসেন বিশ্বব্যাঙ্কের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম। দারিদ্র দূরীকরণে বাংলাদেশের সাফল‌্য দেখতে আসা কিম জানান, বাংলাদেশকে আগামী দু’বছরে শিশুপুষ্টি খাতে বর্তমানের চেয়েও ১০০ কোটি ডলার বেশি ঋণ দেবে বিশ্বব্যাঙ্ক।

সোমবার সকালে সচিবালয়ে বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সঙ্গে বৈঠক করেন বিশ্বব্যাঙ্কের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম। বৈঠক শেষে সাংবাদিক বৈঠকে কথা জানান কিম। তিনি বলেন, “আগামী দিনে বিভিন্ন দেশকে সহায়তা করার তহবিল ৫০ ভাগ বাড়ানো হচ্ছে। সেই সুবাদে আরও বেশি ঋণ পাবে বাংলাদেশ।” পাশাপাশি তিনি উল্লেখ করেন, বিশ্বব্যাঙ্ক এমনিতেই বাংলাদেশকে বড় ধরনের ঋণ দেয়।

সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, “বাংলাদেশের যোগাযোগ-সহ সব খাতেই বিশ্বব্যাঙ্ক ঋণ দিয়ে থাকে। সে ধারাবাহিকতা আগামীতেও থাকবে। পদ্মা সেতুতে যে তহবিল বিশ্বব্যাঙ্কের দেওয়ার কথা ছিল তারা অন্যান্য প্রকল্পে সেটি দিয়েছে। এর মাধ্যমে বিষয়টির সমন্বয় হয়েছে।”

বাংলাদেশের দারিদ্র দূরীকরণের পদক্ষেপগুলো বিশ্বের কাছে তুলে ধরতেই কিমের এই সফর বলে জানিয়েছেন বিশ্বব্যাঙ্কের ঢাকা কার্যালয়ের প্রধান অর্থনীতিবিদ জাহিদ হোসেন।

তবে বাংলাদেশের অর্থনীতিবিদরা বলছেন, “পদ্মা সেতু নিয়ে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে বিশ্বব্যাঙ্কের তিক্ততা কাটানোও কিমের এই সফরের লক্ষ্য।

আজ ‘আন্তর্জাতিক দারিদ্র দূরীকরণ দিবস’। দিবসটি এ বছর ঢাকায় পালন করছে বিশ্বব্যাঙ্ক। রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আজ বেলা তিনটেয় রয়েছে ‘দারিদ্র মুক্ত বিশ্বে বাংলাদেশ’ শীর্ষক গণবক্তৃতা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি থাকবেন। এতে বিশেষ বক্তব্য দেবেন বিশ্বব্যাঙ্কের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন বিশ্বব্যাঙ্কের নতুন প্রধান অর্থনীতিবিদ পল রোমার।

‘সমৃদ্ধ বাংলাদেশ’ নামে আরও একটি প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হবে অনুষ্ঠানে। এর পর ‘২০৩০ সালের মধ্যে দারিদ্র নিরসন: বাংলাদেশের অভিজ্ঞতা বিনিময়’ শীর্ষক প্যানেল আলোচনায়ও বিশ্বব্যাঙ্ক প্রেসিডেন্ট বক্তব্য দেবেন। এ ছাড়াও এই আলোচনায় অংশ নেবেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী এ এম এ মুহিত, বাংলাদেশের পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, পল রোমার, অ্যাকশন এইড-বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ফারাহ কবির এবং মোহাম্মদী গ্রুপের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রুবানা হক।

বিশ্বব্যাঙ্কের অর্থ সহায়তায় বাস্তবায়িত কয়েকটি প্রকল্প দেখতে মঙ্গলবার বরিশাল যাবেন জিম ইয়ং কিম। সেখান থেকে দুপুরে ঢাকায় ফিরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করবেন তিনি। এর পর বিকেলে বিশ্বব্যাঙ্কের ঢাকা কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করে ঢাকা ছাড়বেন প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম।

আরও খবর...

বাংলাদেশ-রাশিয়ায় যাতায়াত ভিসা ছাড়াই

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE