Advertisement
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Education

জ্ঞান এবং কঠোর পরিশ্রম: সাফল্যের স্তম্ভ

বাচ্চাদের শিক্ষা এবং জ্ঞান বৃদ্ধিতে সহায়তা করার জন্য ক্যুইজ হল এক কার্যকর মাধ্যম

বিজ্ঞাপন প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২৯ অক্টোবর ২০২০ ১৮:১০
Share: Save:

যে কোনও মহান অর্জনকারীর জীবন কাহিনী থেকে আপনি জানতে পারবেন যে, সাফল্য একদিনে আসেনি। তাঁরা কঠের পরিশ্রম করেছিলেন এবং লক্ষে পৌঁছানোর জন্য দক্ষতা ও জ্ঞান তৈরি করেছিলেন। আজকের বিশ্ব দ্রুত পরিবর্তিত হচ্ছে এবং দ্রুতগতির এই পরিবর্তিত বিশ্বের সাথে চাল মিলিয়ে চলার জন্য আমাদেরও নিজেদেরকে নতুনভাবে উদ্ভাবন করতে হবে, শিখতে হবে এবং ক্রমবর্ধমান হতে হবে। আমাদের জ্ঞান এবং কঠোর পরিশ্রমের গুণাবলীকে আঁকড়ে ধরতে হবে, যাতে আমরা সাফল্যের লক্ষে একটি ভিত্তি গড়ে তুলতে পারি এবং আমাদের স্বপ্ন এবং লক্ষ অর্জনে এগিয়ে যেতে পারি।

শিশুরা নমনীয় এবং অনুভূতিপ্রবণ হয় এবং একজন ব্যক্তির বেশিরভাগ শিক্ষাই তাদের শৈশবকালে ঘটে থাকে। বাচ্চারা আসলে ৯ থেকে ১২ বছর বয়সের মধ্যে এমন দক্ষতা বিকাশ করতে শুরু করে যা তাদের ভবিষ্যত গড়তে সাহায্য করে এবং তাদের পছন্দ, দক্ষতা এবং প্রবণতা অনুসারে ক্যারিয়ারের অপশনগুলিকে নিয়ে ভাবনা চিন্তা করা শুরু করে। তারা সামাজিক এবং সাধারণ সচেতনতা বিকাশ করতে এবং বিমূর্ত ধারণাগুলি প্রক্রিয়া করতেও আরম্ভ করে। সুতরাং, শৈশবেই যদি কেউ তাদের কঠোর পরিশ্রম করার এবং জ্ঞানীয় বিকাশের বিস্তারিত সুবিধার বিষয়ে শেখায়, তাহলে তাঁদের মন বৃদ্ধি এবং সাফল্য অর্জনে সজ্জিত হয়ে উঠবে।

বাচ্চাদের শিক্ষা এবং জ্ঞান বৃদ্ধিতে সহায়তা করার জন্য ক্যুইজ হল এক কার্যকর মাধ্যম। ক্যুইজের মজাদার ফর্ম্যাট তাদের কঠোর পরিশ্রম এবং অধ্যাবসায়ের মূল্য সম্পর্কে শেখানোর পাশাপাশি তাদের বিকাশে গতি আনার জন্য তাদেরকে চ্যালেঞ্জ জানানোর বৈশিষ্ট্যগুলিও অন্তর্ভুক্ত করে।

যেহেতু আরও বেশি সংখ্যক বাচ্চারা জাতীয় স্তরের ক্যুইজ প্রতিযোগিতার উত্তর দিতে এবং পুরস্কার জিততে উদ্বুদ্ধ হচ্ছে, তাই মাইন্ড ওয়ার্স অলিম্পিয়াড প্রকৃতপক্ষে জ্ঞান অর্জনের একটি মূল মাধ্যম হিসেবে কাজ করে। এই অলিম্পিয়াড চতুর্থ শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণির বাচ্চাদের জন্য উন্মুক্ত এবং জীবনের প্রতিটি পর্যায়ে তাদের জ্ঞানীয় স্তর, এক্সপোজার, অভিজ্ঞতা এবং উপযোগিতার উপর ভিত্তি করে প্রতিটি শ্রেণীর জন্য উপযুক্ত বিষয়ের এক অনন্য মিশ্রণের গর্বিত সমাবেশ। অলিম্পিয়াড শিশুদের সুদৃঢ় বিকাশের বিষয়টি নিশ্চিত করার একটি মজবুত প্রয়াস এবং বাচ্চাদের প্রাপ্ত চূড়ান্ত স্কোর থেকে সন্তুষ্ট না হওয়া পর্যন্ত বারংবার যাচাই করার অনুমতি দিয়ে তাদের ভবিষ্যতের যোদ্ধা হিসাবে গড়ে তোলার এক দুর্দান্ত সরঞ্জাম।

জি এন্টারটেইনমেন্ট এন্টারপ্রাইজ লিমিটেডের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মিঃ উমেশ কুমার বনসাল বলেছেন যে, "মাউন্ড ওয়ার্স অলিম্পিয়াডের লক্ষ হল শিক্ষার্থীদের এমন একটি শিক্ষার পরিবশ প্রদান করা যেখানে তারা অসীমভাবে বেড়ে উঠতে পারবে কিন্তু একক পরীক্ষায় তাদের যোগ্যতা নির্ধারণ করতে পারে না। আমরা ওদের ভুল থেকে শিখতে এবং তাদের জ্ঞান এবং আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে তোলার একটি সুযোগ দিতে চাই। এই অলিম্পিয়াডটি এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যাতে বাচ্চাদের অবিচ্ছিন্ন শেখার এবং উন্নতির লক্ষ অর্জনে উৎসাহিত করা যায়।"

সুতরাং, আপনার ছোট্ট সোনাকে মাইন্ড ওয়ার্স বিশ্বের সাথে পরিচয় করান এবং দেখুন যে তারা পরবর্তী জাতীয় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য কীভাবে প্রস্তুত হচ্ছে!

পরিশ্রম জারি আছে অলিম্পিয়াডের। প্রস্তুতি চলছে। রেজিস্টার করতে ক্লিক করুন - www.mindwars.co.in

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE