জাতীয় নিরাপত্তা নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করে ইতিমধ্যেই চিনের টেলিকম যন্ত্রাংশ সংস্থা হুয়েইকে কালো তালিকাভুক্ত করেছে আমেরিকা। চাপ দিচ্ছে অন্য দেশগুলিকেও সেই পথে হাঁটার জন্য। তবে শেষমেশ সব সন্দেহ দূরে সরিয়ে হুয়েইকে ৫জি প্রযুক্তি প্রদর্শনের ছাড়পত্র দিয়েই দিল কেন্দ্রীয় টেলিকম দফতর (ডট)। তা-ও আবার চিনের প্রেসিডেন্ট শি চিনফিংয়ের ভারত সফরে আসার ঠিক আগে। যা তাৎপর্যপূর্ণ বলে দাবি সংশ্লিষ্ট মহলের। এর ফলে আগামী সপ্তাহে ইন্ডিয়ান মোবাইল কংগ্রেসে (আইএমসি) যোগ দিতে পারবে হুয়েই। 

সম্প্রতি ভারতের জাতীয় সাইবার সিকিউরিটি কোঅর্ডিনেটর রাজেশ পন্থও ৫জির পরীক্ষামূলক প্রদর্শনের জন্য হুয়েইকে সায় দেওয়ার আগে প্রযুক্তিগত সুরক্ষার বিষয়টি খতিয়ে দেখার কথা বলেছিলেন। তবে সম্প্রতি ইন্ডিয়া ইকনমিক সামিটে বিতর্কিত চিনা সংস্থাটির পক্ষে সওয়াল করেন ভারতী এন্টারপ্রাইজের চেয়ারম্যান সুনীল মিত্তল। বলেন, প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থাগুলির চেয়ে হুয়েই-এর দক্ষতা বেশি। তাই ভারতে ৫জি প্রযুক্তি প্রসারে তাদের অনুমতি দেওয়া উচিত।

এই সিদ্ধান্তে খুশি হুয়েই-এর সিইও জে তেন বলেন, আইএমসি-তে প্রযুক্তি প্রদর্শনের জন্য দু’টি টেলিকম সংস্থার সঙ্গে কথা বলছেন তাঁরা। শিল্প মহল সূত্রের খবর, সংস্থা দু’টি এয়ারটেল ও ভোডাফোন আইডিয়া।