দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের চাকা ফের মসৃণ পথে ফেরাতে শুক্রবার থেকে বৈঠকে বসছে ভারত-আমেরিকা। এ জন্য দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়ার দায়িত্বপ্রাপ্ত মার্কিন সহকারী বাণিজ্য প্রতিনিধি ক্রিস্টোফার উইলসনের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল দিল্লি পৌঁছেছে। ভারতের বাণিজ্য মন্ত্রকের অতিরিক্ত সচিবের নেতৃত্বাধীন একটি দলের সঙ্গে বৈঠক করবে তারা। 

আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে শুল্ক-যুদ্ধের মধ্যেই আমেরিকার সঙ্গে ভারতের বাণিজ্যের আকাশে মেঘ জমছিল। গত ৫ জুন থেকে আমেরিকার বাজারে কিছু পণ্যের রফতানির ক্ষেত্রে ভারতকে দেওয়া সুবিধা (জিএসপি) প্রত্যাহার করে নেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর পাল্টা হিসেবে ১৬ জুন থেকে আমেরিকার ২৮টি পণ্যের আমদানি শুল্ক চাপায় ভারত। 

এরই মধ্যে জাপানের ওসাকায় জি-২০ বৈঠকের ফাঁকে ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ঠিক হয়, বাণিজ্যিক সম্পর্কের সমস্যার সমাধানে বৈঠকে বসবে দু’পক্ষ। তার ভিত্তিতেই শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে বৈঠক। বৃহস্পতিবারই আমেরিকার এক বাণিজ্য মধ্যস্থতাকারী গোষ্ঠী জানিয়েছে, প্রত্যেক বছর দু’দেশের মধ্যে বাণিজ্য বৃদ্ধি যদি ৭.৫% হয়, তা হলে ২০২৫ সালে ভারত ও আমেরিকার বাণিজ্যের অঙ্ক হবে ২৩,৮০০ কোটি ডলার। 

এ দিকে, চিনের বিরুদ্ধে ফের তোপ দেগেছেন ট্রাম্প। তাঁর বক্তব্য, প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী আমেরিকার কৃষিপণ্য আমদানি করছে না বেজিং।