গত বছর অগস্টের তুলনায় এ বছর অগস্টে দেশের শিল্পোৎপাদন সূচক নামল ১ শতাংশের বেশি। গাড়ি শিল্পে দীর্ঘ মন্দা সত্ত্বেও, জানুয়ারি থেকে জুলাই— বছরের প্রথম ৬ মাসে কিন্তু শিল্পোৎপাদন সূচক গত বছরের তুলনায় বেশি ছিল। অগস্টে তা কমল ১.১ শতাংশ। শুক্রবার কেন্দ্রীয় সরকারের পরিসংখ্যান ও কর্মসূচি রূপায়ণ মন্ত্রকের দেওয়া এক প্রেস বিবৃতিতে এই তথ্য উঠে এসেছে।

দেশে এখন শিল্পোৎপাদন সূচক তৈরি হয় ২০১১-১২কে ভিত্তিবর্ষ ধরে। অর্থাৎ ওই বছরের উৎপাদনকে ১০০ ধরে নিয়ে পরবর্তী সময়ের উৎপাদন সূচক দেওয়া হয়। সেই হিসেবে গত বছর অগস্টে উৎপাদন সূচক ছিল ১২৮.০। এ বছর অগস্টে তা নেমে এসেছে ১২৬.৬-এ। খনি (মাইনিং), উৎপাদন শিল্প (ম্যানুফ্যাকচারিং) এবং বিদ্যুত্ (ইলেকট্রিসিটি)— এই তিন শিল্প ক্ষেত্রের আলাদা আলাদা হিসেবও দিয়েছে মন্ত্রক।

খনি শিল্পে সূচক সামান্য বেড়েছে। গত বছর অগস্টে ছিল ৯২.০। এ বার ৯২.১। উৎপাদন শিল্পে গত বছর অগস্টের সূচক ছিল ১৩০.৬। এ বার ১.২ শতাংশ কমে হল ১২৯.০। বিদ্যুতে ১৬৭.২ থেকে, ০.৯ শতাংশ কমে হয়েছে ১৬৫.৭।

আরও পড়ুন:দুশ্চিন্তা বাড়াচ্ছে মূল্যবৃদ্ধি
আরও পড়ুন:আজ ফের বৈঠক, সংগঠন অনড় ২০% বোনাসের দাবিতে, বহাল প্রশ্নও

উৎপাদন সূচক সবচেয়ে বেশি নেমেছে যাত্রিবাহী ও পণ্যবাহী গাড়ি শিল্পে। কমেছে বস্ত্র, চর্ম, কাগজ, রাসায়নিক, রবার, আসবাবপত্র ইত্যাদির উৎপাদনও। 

গত অর্থবর্ষের প্রথম পাঁচ মাস (এপ্রিল-অগস্ট) মিলিয়ে শিল্পোৎপাদন সূচকের বৃদ্ধির হার ছিল ৫.৩ শতাংশ। এ বছরের প্রথম পাঁচ মাসে সেই হার নেমে এসেছে ২.৪ শতাংশে।