উল্টোডাঙায় রুট মার্চের সময় ভোটারদের সঙ্গে কথা বলতে দেখা গিয়েছিল কেন্দ্রীয় বাহিনীকে। তৃণমূলের অভিযোগ, কথা বলার নামে ভোটদের ভয় দেখানো হচ্ছে। বিষয়টিকে ‘অতি সক্রিয়তা’ হিসাবে উল্লেখ করে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানানো হয়।

তৃণমূলের করা সেই অভিযোগের আদৌ কোনও ভিত্তি রয়েছে কি না, এ বার তা খতিয়ে দেখবে নির্বাচন কমিশন। সে জন্য বুধবার কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মার কাছে ওই দিনের রুট মার্চের ভিডিয়ো ফুটেজ তলব করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় বাহিনী যখন রুট মার্চ করে, তখন স্থানীয় পুলিশের তরফে তার ভিডিয়োগ্রাফি করা হয়। সেই ফুটেজই এ ক্ষেত্রে খতিয়ে দেখা হবে। একই রকম ভাবে সংবাদমাধ্যমগুলোর কাছ থেকেও ফুটেজ চাওয়া হবে বলে কমিশন সূত্রে জানা গিয়েছে।

রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের (সিইও) কার্যালয় বিষয়টি খতিয়ে দেখতে কলকাতা উত্তরের জেলা নির্বাচনী আধিকারিক (ডিইও)কে নির্দেশ দেয়। কমিশন সূত্রে খবর, ডিইও দিব্যেন্দু সরকার এর পর কলকাতার পুলিশ কমিশনারের কাছে ওই দিনের ভিডিয়ো ফুটেজ চেয়ে পাঠিয়েছেন। তিনি বিষয়টি খতিয়ে দেখার পর, মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের দফতরে সবিস্তার রিপোর্ট পাঠাবেন।

আরও পড়ুন- কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে নালিশও শুনবে কমিশন​

আরও পড়ুন- দিলদারের বাড়ি ছুঁয়ে গেল পুলিশ, বাহিনী​

অন্য দিকে, এ দিন সকালে সিইও দফতরে বিএসএফের আইজি-র সঙ্গে বৈঠক করেন নির্বাচন কমিশনের আধিকারিকরা৷ ছিলেন এডিজি (আর্মড পুলিশ), এডিজি (আইনশৃঙ্খলা) সিদ্ধিনাথ গুপ্তও। ওই বৈঠকে রুট মার্চের সময় কোন কোন দিক খেয়াল রাখা উচিত, তা নিয়ে যেমন আলোচনা হয়েছে, তেমই সীমান্তবর্তী এলাকার নিরাপত্তার বিষয়টিও উঠে এসেছে বলে কমিশন সূত্রে জানানো হয়েছে।