• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দোকানের সামনে রাখা ব্যাগে বিস্ফোরণ

Explosion
প্রতীকী ছবি।

দোকানের কর্মীর নজর এড়িয়ে দরজার সামনে ছোট একটি ব্যাগ রেখে দিয়েছিল ক্রেতা। সে বেরিয়ে যাওয়ার কয়েক মুহূর্তের মধ্যেই ব্যাগে থাকা বোমা ফেটে বিস্ফোরণ হয়। রবিবার, নবমীর সকালে কামারহাটির এই ঘটনায় কেউ হতাহত হননি। তবে বি টি রোডের ধারে একটি ওষুধের দোকানের এই ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

দোকানটির সিসি ক্যামেরার ফুটেজে ওই ক্রেতার ছবি পেয়েছে বেলঘরিয়া থানার পুলিশ। ব্যারাকপুর কমিশনারেটের এক কর্তা বলেন, ‘‘কে বা কারা এই ঘটনায় জড়িত তার খোঁজ চলছে। ব্যাগে কী ধরনের বোমা ছিল, তা-ও পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।’’

পুলিশ সূত্রের খবর, ওই ওষুধের দোকানের মালিক জাকির হোসেনের অভিযোগ, গত ২১ অক্টোবর রাতে ১০ লক্ষ টাকা তোলা চেয়ে একটি অচেনা নম্বর থেকে তাঁর কাছে ফোন আসে। তোলা না দিলে তাঁর ছেলেকে গুলি করার হুমকিও দেওয়া হয়। পুলিশের কাছে অভিযোগ জানালে তদন্তে নেমে জানা যায়, কামারহাটির বস্তি এলাকা থেকে ওই ফোন করা হয়েছিল। এর পরে গত শনিবার জাকিরের বাড়ির সামনে তাজা বোমা মেলে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে তা উদ্ধার করে।

এ দিন সকাল সাড়ে ১১টা নাগাদ এক যুবক ব্যাগ হাতে দোকানে আসে। দোকানের কর্মী জানান, ১৫ টাকার ওষুধ কেনে সে। কিন্তু হাতের ব্যাগটি সে কখন মাটিতে নামিয়ে রেখেছে, তা বুঝতে পারেননি ওই কর্মী। ওই যুবক বেরিয়ে যাওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যেই ফাটে বোমা। খবর পেয়ে বেলঘরিয়া থানার বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে আসে। প্রাথমিক ভাবে অনুমান, এটি খুব কম ক্ষমতাসম্পন্ন কোনও বোমা ছিল, যা রিমোট কন্ট্রোলের মাধ্যমে ফাটানো হয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন