এক বালিকার মৃত্যু ঘিরে রবিবার উত্তেজনা ছড়াল ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। পুলিশ জানিয়েছে, বেলগাছিয়ার বাসিন্দা গুরনিগর খাতুন (১৩) নামে ওই বালিকা খাদ্যনালীর সমস্যা এবং রক্তের সংক্রমণে ভুগছিল। চিকিৎসাধীন ছিল টালার এক নার্সিংহোমে। এ দিন সেখান থেকে তাকে ন্যাশনাল মেডিক্যালে আনা হয়। চিকিৎসকেরা অ্যাম্বুল্যান্সে রোগিণীকে দেখে জরুরি বিভাগে রেফার করেন। এর মধ্যেই মারা যায় মেয়েটি। তার পরেই চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলে গুরনিগরের পরিজনেরা বলতে থাকেন, কেন তাকে প্রথমেই আইসিইউয়ে ভর্তি করা হল না। রামমোহন ব্লকের সামনে বিক্ষোভও দেখান তাঁরা। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, তাঁরা ময়না তদন্ত করার কথা বলতেই কিশোরীর দেহ নিয়ে চলে যান বাড়ির লোক। কর্তৃপক্ষের আরও অভিযোগ, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে গোলমাল করা হয়েছে। খবর পেয়ে পৌঁছয় বেনিয়াপুকুর থানার পুলিশ। প্রায় শ’খানেক লোকের ভিড়কে নিয়ন্ত্রণে আনতে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হয়।