কংগ্রেস সমর্থকদের বিক্ষোভের জেরে কলকাতায় বন্ধ হয়ে গেল ‘দি অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’-এর প্রদর্শন। শুক্রবার সকালে হিন্দ আইনক্সে শো শুরু হওয়ার ১০ মিনিটের মধ্যে নিরাপত্তার কারণে ছবির প্রদর্শন বন্ধ করতে বাধ্য হন কর্তৃপক্ষ।

ওই সিনেমার ট্রেলার মুক্তির পর থেকেই বিতর্কের সূত্রপাত। কংগ্রেস আপত্তি জানিয়ে অভিযোগ করে, লোকসভা ভোটের আগে উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে এই ছবি থেকে রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে চাইছে বিজেপি। যদিও এই অভিযোগ নাকচ করে দেন বিশিষ্ট অভিনেতা অনুপম খের। তিনিই ওই ছবিতে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহের ভূমিকায় অভিনয় করছেন।

এ দিন সকালে হিন্দের সামনে যুব কংগ্রেস কর্মীরা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। বিক্ষোভকারীদের সামাল দিতে লালবাজার থেকে পুলিশ বাহিনী পৌঁছয়। পুলিশ জানিয়েছে, নিরাপত্তার কারণে আপাতত সিনেমার প্রদর্শন বন্ধ করতে বলা হয়েছে।

(ইতিহাসের পাতায় আজকের তারিখ, দেখতে ক্লিক করুন— ফিরে দেখা এই দিন।)

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, এ দিন সকাল থেকেই হিন্দের সামনে ভিড়় বাড়তে থাকে। বিক্ষোভকারীদের দাবি ছিল, ওই ছবি কলকাতায় দেখানো যাবে না। প্রতিবাদে তাঁরা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কুশপুতুলও পোড়ান। সকালের শোয়ে ছবির প্রদর্শন শুরু হওয়ার পরেই বিক্ষোভ বাড়তে থাকে। হলের ভিতরে ঢুকে যান আন্দোলনকারীরা।

আরও পড়ুন: রাজ-শক্তি, সিবিআই ডিরেক্টরের পদ ফিরে পাওয়ার দু’দিনের মাথাতেই বিদায় বর্মার

আরও পড়ুন: সারা মাসের জন্য একটিই বই, স্কুলের বইয়ের ভার কমাতে অভিনব পদক্ষেপ প্রধান শিক্ষকের

আরও পড়ুন: ২৪ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা গর্ভপাতের অনুমতি চেয়ে দ্বারস্থ হাইকোর্টে

হিন্দ আইনক্স কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, এ দিন ওই ছবির আর কোনও শো প্রদর্শিত হবে না। পুলিশের অনুমতি মিললে, ফের কবে শো চালু হবে তা জানিয়ে দেওয়া হবে। যদিও এ বিষয়ে  যুব কংগ্রেস সহ-সভাপতি রোহন মিত্র দাবি করেছেন, ‘‘কংগ্রেস বাক স্বাধীনতার বিপক্ষে নয়। দলের সভাপতি রাহুল গাঁধীও এই ছবি প্রদর্শনের বিরুদ্ধে কোনও বিক্ষোভের অনুমতি দেননি। জোর করে শো বন্ধ করতে বলা হয়নি। দলের কেন্দ্রীয় বা রাজ্য নেতৃত্ব এই ধরনের বিক্ষোভের অনুমোদন করেনি।”

(কলকাতা শহরের রোজকার ঘটনা, কলকাতার আবহাওয়া, কলকাতার হালচাল জানতে চোখ রাখুন আমাদেরকলকাতাবিভাগে।)