১। আমার জন্ম তারিখ ১৭/০২/১৯৮৮। জন্মস্থান মধ্যমগ্রাম। জন্ম সময় সকাল ৬টা ২০ মিনিটের মধ্যে। শনির সাড়ে সাতির কোনও প্রভাব কি আমার জীবনে পড়বে? যদি পড়ে তা হলে তা থেকে বাঁচার উপায় কী?

উত্তরঃ- আপনার এ বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে সাড়ে সাতি শুরু হয়েছে। চলবে আগামী সাড়ে সাত বছর। জীবনের কিছু কিছু বিপদ থেকে রাশিপতি শনি রক্ষা করবেন অবশ্যই। শারীরিক, মানসিক, আর্থিক দিকে যথেষ্ট টানাপড়েন চলবে। গুরুজনহানি ঘটতে পারে। বিনা দোষে দোষী হতে পারেন। মিথ্যা বদনাম জুটতে পারে। ভাই ভাইয়ে ঝামেলা, মামলা-সহ বিভিন্ন দিকে সমস্যা থাকবে। চাকরি বা ব্যবসা সব দিকেই শান্তি বিঘ্ন হবে। আপনি প্রতি শনিবার ও মঙ্গলবার নিরামিষ আহার করুন। হনুমানজী ও দক্ষিণাকালীর পূজা করুন। লাল চন্দন, লাল জবা, মেটে সিদুঁর, লাল লাড্ডু দিয়ে পূজা করুন।

২। আমার জন্ম তারিখ ১২ ডিসেম্বর, ১৯৯২। সকাল ৯টা ২০ মিনিটে কলকাতায় আমার জন্ম। আমার কর্মক্ষেত্র নিয়ে খুব চিন্তায় আছি। দেশের বাইরে চাকরির কোনও সুযোগ রয়েছে কি?

উত্তরঃ- আপনার কর্মক্ষেত্রে যেমন উন্নতি হবে, তেমনই কর্মহানির যোগও বেশি। হওয়া কাজে বাধা থাকবে। আগামী ২০১৯ সালের অগস্টের পর উপযুক্ত কর্ম লাভের প্রবল সম্ভাবনা লক্ষ্যণীয়। বর্তমানে দেশের বাইরে চাকরির ক্ষেত্রে আইন সংক্রান্ত সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। তবে আপনার জন্মকুণ্ডলীতে স্বগৃহে ও কেন্দ্রস্থানগত শনি। আপনি আইন সংক্রান্ত কোনও বৃত্তিতে যুক্ত হবেন। আগামীতে কর্মক্ষেত্রে সাফল্য পাবেন।

৩। আমার নাম ইন্দ্রজীৎ পাল। আমার জন্ম ১৯/০৫/১৯৯২ সালে ফরাক্কায় বিকেল ৪টে ১০ মিনিটে। আমি কি আমার উচ্চশিক্ষা সম্পূর্ণ করতে পারব?

উত্তরঃ- বিদ্যাচর্চার ক্ষেত্রে শুভ ফল আশা করা যায়। অবশ্য শিক্ষার ক্ষেত্রে দুটো বিপরীতমুখী বিষয়ের প্রতি মন আকৃষ্ট হতে পারে। সে ক্ষেত্রে যে বিষয় প্রথমে ভাল লাগছে, সেটাকেই অনুসরণ করা উচিত। বিলাসিতায় বেশি নজর গেলে মুশকিল। সঠিক ভাবে চলতে পারলে সাফল্য আশা করা যায়।

৪। আমার জন্ম সময় বিকেল সাড়ে ৫টা। আমার জীবনে কি উন্নতি হবে? কী ধরনের চাকরি পাব?

উত্তরঃ- বিবাহের পর আপনার জীবনে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন ঘটবে। সরকারি কোনও দফতরে জনসংযোগ জাতীয় কর্মে লিপ্ত হওয়ার সম্ভাবনা। তবে আপনাকে নিয়ে খবর তৈরি হওয়ারও বিশেষ সম্ভাবনা বিদ্যমান।

৫। আমার জন্ম ২০/৭/১৯৮৭। ভোর পৌনে ৫টায়। আমি আমার কেরিয়ার এবং বিবাহিত জীবন সম্পর্কে জানতে চাই।

উত্তরঃ- আপনার বিবাহিত জীবন ও কর্ম জীবনে অপমান বা অপবাদ জাতীয় সমস্যায় কষ্টদায়ক হবে। পারিবারিক সম্পর্কে হঠাৎ করে ভাঙন ধরতে পারে। অবশ্য অর্থপ্রাপ্তিও ঘটবে ও কর্মে উন্নতিও হবে। বিবাহ ও বিবাহিত জীবনে মতান্তর এড়িয়ে চলা শ্রেয়। কলহ চূড়ান্ত মাত্রায় পৌছতে পারে। গ্রহদোষ কাটিয়ে নেওয়া আবশ্যক।

৬। আমার জন্ম বাঁশবেড়িয়ায়। জন্ম তারিখ ৮ জুন, ১৯৮২। সকাল সওয়া ৬টায়। আমার চাকরি জীবন সম্পর্কে জানাবেন। বিবাহিত জীবন কেমন হবে? আমার কি নিজস্ব বাড়ি হবে?

উত্তরঃ- আপনার আগামী কয়েক বছর শনির সাড়ে সাতি চলবে। শারীরিক, মানসিক, আর্থিক দিকে সতর্ক থাকতে হবে। হঠকারী সিদ্ধান্ত থেকে বিরত না হলে সমূহ ক্ষতির মুখোমুখি হতে হবে। কর্মচ্যুতি হতে পারে। দাম্পত্য জীবনে শান্তি বিঘ্নিত হবে। নিজস্ব বাড়ির জন্য উপযুক্ত সময়ের অপেক্ষা করতে হবে। সুতরাং স্থান, কাল, পাত্র মেনে সংযত আচরণে শুভ ফল লাভ হবে বলা যায়। সাড়ে সাতির দোষ কাটানো প্রয়োজন।

৭। আমার জন্ম হুগলি জেলায় সকাল ১১টার সময়। আমার জন্ম তারিখ ১৯৮৮ সালের ১০ ডিসেম্বর। সরকারি চাকরি পাব? ভবিষ্যৎ কেমন যাবে?

উত্তরঃ- আপনার শনির সাড়ে সাতি চলছে। আগামী পাঁচ বছর চলবে। শারীরিক, মানসিক, আর্থিক দিকে যথেষ্ট টানাপড়েন চলবে। সাড়ে সাতির প্রভাব মুক্ত হওয়ার পর আপনি নিশ্চিত থাকতে পারেন যে, আপনি কোনও বৃহৎ প্রতিষ্ঠান অথবা সম্ভবত কোনও সরকারি বিভাগে অবশ্যই যুক্ত হবেন। আগামীতে আপনি গৃহের মালিক হবেন। তবে আপনার জন্মকুণ্ডলীতে কুলপাংশল যোগ বিদ্যমান। এই যোগের দরুন আপনার পরিবারের লোকজনদের সঙ্গে মতপার্থক্য থাকতে পারে এবং আপনার জীবনসঙ্গীর সঙ্গে আপনার সম্পর্ক খারাপ হয়ে যেতে পারে। আপনি আপনার পরিবার পরিত্যাগ করতে পারেন এবং কোনও দূরবর্তী স্থানে গিয়ে দীর্ঘকাল বসবাস করতে পারেন।

৮। আমার জন্মস্থান কলকাতা। ভোর ৫টা ৪৮ মিনিটে। তারিখ ২৭/১০/১৯৯৪। আমি চাকরির চেষ্টা করছি। কোন বিভাগের জন্য প্রস্তুতি নেব?

উত্তরঃ- আপনার জন্মকুণ্ডলীতে রাজযোগ বিদ্যমান। আপনি জীবনে ঈর্ষণীয় অবস্থানে উন্নীত হবেন। আপনি নিশ্চিত ভাবে সরকারি বিভাগে যুক্ত হবেন। আপনার ২৬ বছর বয়সের মধ্যে কর্ম লাভের প্রবল সম্ভাবনা লক্ষ্যণীয়। আপনি যে কোনও ইঞ্জিনিয়ারিং শাখায় সুফল লাভ করবেন, তা সে যান্ত্রিক, বৈদ্যুতিক, পূর্ত, ধাতু সম্পর্কিত যাই হোক না কেন। তবে আপনি পূর্ত বিভাগের জন্য প্রস্তুতি নিতে পারেন। সাফল্য আশা করা যায়।

জ্যোতিষীর কাছে প্রশ্ন পাঠাতে মেল করুন:
jeevandarshan@abpdigital.in