• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

করোনাভাইরাস নিয়ে ভুয়ো প্রচার, ধৃত যুবক

Arrest
প্রতীকী ছবি

সাত বছরের বালক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে— সোশ্যাল মিডিয়ায় এই গুজব রটনার অভিযোগে পুলিশ এক যুবককে গ্রেফতার করল। রবিবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে হাবড়ার জয়গাছি এলাকায়। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতের নাম বিপ্লব সরকার। সে হাবড়া পুরসভার অস্থায়ী কর্মী। এ দিকে, বালকের মায়ের দাবি, বিপ্লব গ্রেফতার হওয়ার পরে কয়েকজন তাঁকে মামলা তুলে নিতে চাপ দিচ্ছে। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।   

শুক্রবার সন্ধ্যায় বিপ্লব সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই পোস্ট করেছিল বলে অভিযোগ। পরবর্তী সময়ে অবশ্য সে পোস্টটি ডিলিট করে দেয়। বালকের পরিবারের অভিযোগ, সোশ্যাল মিডিয়ায় মিথ্যে প্রচারের ফলে সামাজিক ভাবে কার্যত একঘরে হয়ে পড়েছিলেন তাঁরা। মুদি দোকান থেকে মালপত্র দেওয়া বন্ধ হয়ে যায়। পাড়ার কেউ তাঁদের সঙ্গে মেলামেশা করছিলেন না। সকলেই বাঁকা নজরে দেখছিলেন। এড়িয়ে চলছিলেন। সব মিলিয়ে আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাতে হচ্ছিল পরিবারটিকে। শনিবার তাঁরা হাবড়া থানার দ্বারস্থ হন।

বিপ্লব গ্রেফতার হওয়ার পরে পরিস্থিতি পাল্টাচ্ছে বলে জানিয়েছেন বালকের মা। তিনি বলেন, ‘‘এখন মুদিখানার মালিক দোকানি মালপত্র দিচ্ছেন। সকলে কথাবার্তা বলতে শুরু করেছেন।’’

পুলিশের কাছে দায়ের করা অভিযোগে পরিবারটি জানিয়েছিল, সাত বছরের ছেলের ব্রেন টিউমার হয়েছে। সম্প্রতি পরিবারের লোকজন ছেলেকে নিয়ে বেঙ্গালুরু ও হায়দরাবাদ গিয়েছিলেন চিকিৎসার জন্য। দিন কয়েক আগে তাঁরা বাড়ি ফেরেন। শুক্রবার শিশুটিকে হাবড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসককে দেখানো হয়েছিল সে সময়ে। ছেলেটির মায়ের অভিযোগ, শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে আচমকা সোশ্যাল মিডিয়ায় বিপ্লব একটি পোস্ট দেয়। ছোট ছেলেটির নাম দিয়ে লিখে দেয়, বাচ্চাটি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। এর পরেই পরিবারটি নানা রকম সামাজিক চাপের মধ্যে পড়ে। রবিবার দুপুরে ছেলেটির মা নিজেই বিপ্লবের বাড়ি খুঁজে বের করেন। পুলিশকে ফোন করে জানালে পুলিশ এসে তাকে থানায় নিয়ে যায়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভ্রান্তিমূলক গুজব না ছড়ানোর জন্য প্রশাসনের তরফে মাইকে প্রচার শুরু হয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন