স্বরূপনগরের বিধায়ক তথা উত্তর ২৪ পরগনা জেলা পরিষদের সভাধিপতি বীণা মণ্ডলের উদ্দেশে ফেসবুকে আপত্তিকর মন্তব্য করার অভিযোগে তৃণমূলের এক নেতাকে গ্রেফতার করল পুলিশ। মঙ্গলবার ধরা পড়েন দেবাশিস মণ্ডল নামে ওই নেতা। বুধবার বসিরহাট এসিজেএম আদালতে তোলা হলে বিচারক তাঁর অন্তবর্তীকালীন জামিন মঞ্জুর করেছেন। 
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দীর্ঘ দিন ধরে তৃণমূলের হয়ে স্বরূপনগরে কলেজ ইউনিটের দায়িত্বে ছিলেন বাঁকড়া-গোকুলপুর পঞ্চায়েতের দলীয় সদস্য আশালতা মণ্ডলের স্বামী দেবাশিস। সম্প্রতি ফেসবুকে বিধায়কের উদ্দেশে কটূক্তি করেন। ‘মল্লিক’ নামে আরও একজনের নাম আছে সেখানে। তবে তাঁর পরিচয় স্পষ্ট নয়। মঙ্গলবার স্বরূপনগর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন বীণা। পুলিশ দেবাশিসকে গ্রেফতার করে।
বাঁকড়া-গোকুলপুর অঞ্চলের তৃণমূল সভাপতি ব্রজগোপাল বিশ্বাস বলেন, ‘‘কারও প্ররোচনায় দলের বিরোধিতা করে কোনও মন্তব্য পোস্ট করে ঠিক কাজ করেনি দেবাশিস। এ ধরনের ঘটনা বরদাস্ত করা যাবে না। দল উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবে।’’  দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ফেসবুকে প্রতিবাদের ঝড় ওঠায় ভুল বুঝতে পেরে দেবাশিস ক্ষমা চান। তারপরেও অবশ্য অভিযোগ দায়ের হয় থানায়। দেবাশিস কোনও মন্তব্য করতে চাননি। বীণা বলেন, ‘‘বিজেপির ইন্ধনে এই কাজ করা হয়েছে।’’ অভিযোগ অস্বীকার করে বিজেপির জেলা সভাপতি গণেশ ঘোষ অবশ্য বলেন, ‘‘আমাদের অত সময় নেই।’’