বাস দুর্ঘটনায় আহত হলেন জনা তিরিশ যাত্রী। বুধবার বিকেলে ঘটনাটি ঘটেছে ২ নম্বর জাতীয় সড়কে বুদবুদের কোটা মোড়ের কাছে। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পানাগড়ের দিকে যাওয়া যাত্রী বোঝাই বেসরকারি একটি বাসের পিছনে ধাক্কা মারে দ্রুত গতিতে আসা একটি কন্টেনার বোঝাই ট্রেলার। বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের নয়ানজুলিতে উল্টে যায়। আহত যাত্রীদের দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ট্রেলারটি আটক করেছে পুলিশ। চালক ও খালাসি পলাতক।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এ দিন বিকেল ৪টে নাগাদ ওই বাসটি কোটা মোড়ে এসে দাঁড়ায়। যাত্রী ওঠা-নামানোর পরে বাসটি চলতে শুরু করতেই পিছন থেকে ট্রেলারটি ধাক্কা মারে। বাসের চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন। বাঁ দিকের নয়ানজুলিতে পাল্টি খেয়ে পড়ে যায় বাসটি। যাত্রীদের চিৎকার-চেঁচামিচি শুনে দৌড়ে যান আশপাশের বাসিন্দারা।

ওই সময়ে কোটা মোড়ের কাছেই দাঁড়িয়েছিলেন ধরলার বাসিন্দা সুদর্শন আঁকুড়ে। তিনি জানান, ট্রেলারটি দ্রুত গতিতে ছুটছিল। বাসটি নিজের লেন ধরেই যাচ্ছিল। দুর্ঘটনার পরে প্রথমে স্থানীয় বাসিন্দারা উদ্ধারকাজ শুরু করেন। তবে কাছাকাছি সেনা ছাউনি থেকে জাওয়ানেরা এসে উদ্ধারে হাত লাগান। অনেক যাত্রীই মাথা, হাত ও পায়ে চোট পেয়েছেন। 

বুদবুদ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে যাত্রীদের হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, আহত যাত্রীদের মধ্যে ৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এই ঘটনার জেরে বেশ কিছুক্ষণ জাতীয় সড়কে যান চলাচল ব্যাহত হয়। পুলিশ ক্রেনের সাহায্যে বাসটি তুলে থানায় নিয়ে যায়।