• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

গাছ কাটায় অভিযুক্ত পঞ্চায়েতও

পঞ্চায়েতের একাংশ সদস্যের মদতে দুষ্কৃতীরা গাছ কেটে সাফ করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। দক্ষিণ দিনাজপুরের কুমারগঞ্জ ব্লকের সিপিএম পরিচালিত বটুন গ্রামপঞ্চায়েত এলাকার ঘটনা। বাসিন্দাদের অভিযোগ, কিছু দিন ধরে রাতের অন্ধকারে কাঠচোরেরা দক্ষিণ কেশবপুর সহ একাধিক এলাকায় বনদফতর জঙ্গল এবং পঞ্চায়েতের বনসৃজন প্রকল্পে রাস্তার ধারে লাগানো আকাশমণি, সেগুন ও ইউক্যালিপ্টাস গাছ কেটে সাফ করে দিচ্ছে। প্রতি রাতে দুষ্কৃতীরা পিকআপ ভ্যান নিয়ে হানা দিয়ে বিদ্যুতিক করাত ব্যবহার করে গাছ কাটছে বলে বাসিন্দারা বিডিওর কাছে লিখিত অভিযোগ পেশ করেছেন। কুমারগঞ্জ থানাতেও শুক্রবার লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

বাসিন্দাদের অভিযোগ, গত এক সপ্তাহের মধ্যে অন্তত ৪০০ গাছ কেটে দুষ্কৃতীরা তুলে নিয়ে গিয়েছে। গাছ কাটার পিছনে স্থানীয় পঞ্চায়েতের একাংশ নেতৃত্ব ও সদস্য জড়িত বলে গ্রামবাসীরা নালিশ জানিয়েছেন। বটুন গ্রামপঞ্চায়েতের প্রধান পঞ্চমী রায় এবং সদস্য মদন পাহান অভিযোগ অস্বীকার করে দাবি করেন, স্থানীয় কিছু বাসিন্দাদের মদতে দুষ্কৃতীরা এলাকা থেকে গাছ কাটছে বলে অভিযোগ পেয়েছি। এ ব্যাপারে ব্লক প্রশাসনকে আমরা ব্যবস্থা নিতে বলেছি। ব্যাপক হারে বৃক্ষনিধনের অভিযোগ পেয়ে পরিবেশপ্রেমী সংস্থা থেকে বন দফতরের কর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।’’ কুমারগঞ্জের বিডিও ভাস্কর মজুমদার বলেন, ‘‘গাছকাটার অভিযোগ পেয়ে ব্লকের তরফে তদন্ত শুরু হয়েছে। পাশাপাশি কুমারগঞ্জ থানাও তদন্ত করছে।’’ বিডিওর বক্তব্য, ‘‘আগামী ৬ মের মধ্যে রিপোর্ট মিলবে। তার পরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন